বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কাজাখস্তান: রাষ্ট্রীয় সমর্থন আর ইন্টারনেটের উপরে নিষেধাজ্ঞা

“আমি যেমন ভেবেছিলাম, এই বছর কাজাখস্তানের ইন্টারনেটের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হবে,” বলছেন ইঝানোভ

ইন্টারনেট সংযোগের মূল্য কমে যাওয়ায় আর কাজাখস্তানের ভিতরের ট্রাফিকের গতি বেড়ে যাওয়ায় নতুন স্টার্ট-আপ প্রোজেক্ট আর আকর্ষনীয় ওয়েব উদ্যোগ শুরু করার প্রক্রিয়া স্বাভাবিকভাবে গত বছর শুরু হয়েছে। বেশ কয়েকটা ব্লগ প্লাটফর্ম, সামাজিক নেটওয়ার্ক, ছবি আর ফাইল হোস্ট, নাগরিক সাংবাদিকতা ওয়েবসাইট আর পডকাস্ট পোর্টাল চালু হয়েছে। সাম্প্রতিক কয়েক মাসে, এই দেশ ভার্চুয়াল স্পেসে সরকার তাদের অংশগ্রহণের আগ্রহ প্রকাশ করেছে। তারা বাজেট থেকে বেশ কয়েকটা প্রকল্পে টাকা দিয়েছে – আর তারা যেমন কথা দিয়েছে, ”এটা কেবলমাত্র শুরু”। ই-গভার্নমেন্ট ওয়েবসাইট পূননির্মাণ করা হয়েছে, প্রেসিডেন্টের ওয়েবসাইটও নতুন ডিজাইনের অপেক্ষায় আছে। ইজুমচেগ পরামর্শ দিয়েছেন আরো এগিয়ে গিয়ে প্রাতিষ্ঠানিক স্তরে সময় উপযোগী প্রযুক্তি ব্যবহার করার জন্যে:

আমার মনে হয় প্রযুক্তিগত পদ্ধতিতে সরকারী ক্রয়ে স্বচ্ছতা আনার জন্য, এটা জরুরী তাদের সূত্রের কোড সাধারন পাবলিক লাইসেন্সের অধীনে প্রকাশ করা। একই ব্যবস্থা ই-ভোটিং ব্যবস্থা ‘শাইলাউ’ [ নির্বাচন] এর ক্ষেত্রেও হওয়া উচিত।

এদিকে সব থেকে জনপ্রিয় রাশিয়ান ভাষার ব্লগ প্লাটফর্ম লাইভজার্নাল গত বছরের অক্টোবর থেকে কাজাখস্তানে ব্লক হয়ে আছে। সম্প্রতি বিরোধী দলীয় ওয়েবসাইটগুলো ডিডস আক্রমণের শিকার হচ্ছে। এমন একটা শিকার হচ্ছে স্বাধীন সাপ্তাহিকী ‘রেস্পাব্লিকা’ যারা প্রায় প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনা করে।

“এটার ওয়েবসাইট আক্রমণ আর ফিল্টার করা হচ্ছে, আর এই ব্যাপারে তারা প্রধানমন্ত্রীর কাছে লিখেছে। এতে সাড়া দিয়ে তিনি তার অফিসিয়াল ব্লগে তাদের প্রতিবেদনগুলো ছাপিয়ে দিয়েছেন। আমার মনে হয় এটা সৃজনশীল আর শক্তিশালী সাড়া,” লিখেছেন মেগাখুইমিয়াক

পরিচিত এই ব্লগারের মতামতে সায় দেননি ইন্টারনেট- সংবাদপত্র জোনাক্স.নেট এর প্রধান সম্পাদক, যারা দুই সপ্তাহ ধরে ডিডিওর আক্রমণের শিকার হচ্ছে। তিনি দাবী করেছেন যে এই আক্রমণের সাথে সম্পর্ক আছে প্রকাশনার ১) বিরোধী দলের র‌্যালীতে অংশগ্রহনের আহ্বান জানিয়ে যে আপিল করা হয়েছে আর ২) র‌্যালী থেকে পাওয়া জিনিষ, যা সরকারের পদত্যাগ দাবী করেছিল:

অবশ্যই, আপনি বলতে পারেন (যেমন আপনি বলেছিলেন ‘রেস্পাব্লিকা’ সংবাদপত্রকে)- “আমার ব্লগে আপনার প্রতিবেদন প্রকাশ করেন”। আমি এই ধারণার স্বতন্ত্রতার প্রশংসা করি, কিন্তু এটা আমাকে একেবারেই সন্তুষ্ট করেনা। আমরা আমাদের সংবাদপত্রে প্রতিবেদন ছাপাতে চাই। নাহলে সকল সমালোচনামূলক পত্রিকা বন্ধ করে দিয়ে তাদের জিনিষ আপনার ব্লগে ছাপানো যায়।

“ওয়েবে সন্ত্রাসবাদ একটা সমস্যা যেটা আইন প্রয়োগকারী সংস্থা দ্বারা সমাধান করতেই হবে। কারা এইসব আক্রমণ করে? এখন এটা বের করার সময়,” লিখেছেন ইউরি মিজিনোভ প্রধানমন্ত্রীর কাছে তার খোলা চিঠিতে, আর জিজ্ঞাসা করেছেন যে তিনি, এইসব আক্রমণের সাথে কি সরকার প্রধানের কোন সম্পর্ক আছে।

এটি নিউইউরেশিয়াতেও পোস্ট করা হয়েছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .