বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ভিডিও: “শোয়াইন ফ্লু” নিয়ে কথকতা, আতন্ক এবং কৌতুক

ভিডিও চিত্র মানুষের একটি বিশেষ মুহূর্তের অবস্থা দেখায়। সংকটের মুখে বিভিন্ন মানুষের প্রতিক্রিয়া বিভিন্ন রকম হয়। যারা “শোয়াইন ফ্লু” (ইনফ্লূয়েন্জা এ ভাইরাস সাবটাইপ এইচ১এন১) নিয়ে বিভিন্ন খবর পড়ছেন, দেখছেন ও তথ্য সংগ্রহ করছেন তাদের কাছে হয়ত জটিল মনে হতে পারে গুজব থেকে সত্যিকারের খবরগুলো আলাদা করা। এছাড়াও নতুন নতুন নিষেধাজ্ঞা আর উপদেশ সামলানোও বেশ কঠিন হয়ে পরছে। কেউ কেউ তাদের বর্তমান অবস্থা ভিডিওর মাধ্যমে প্রকাশ করছে এবং আজ আপনাদের জন্যে রয়েছে তেমন কিছু চিন্তা উদ্রেককারী, সন্দেহমূলক, সঙ্গীতময়, শৈল্পিক এবং কৌতুকপূর্ণ ভিডিও।

প্রথমে রয়েছে দ্যা এটমিকোস, পুয়েবলার একটি ইন্ডি রক ব্যান্ড যারা শোয়াইন ফ্লু নিয়ে একটি গান লিখেছে এবং এটির ভিডিও পরিবেশনা (ইংরেজী সাবটাইটেলসহ) আপলোড করেছে। ফরাসী ভিডিওব্লগ লো বাজ ডরথির জন্যে ভিডিওটি ফরাসী ভাষায় ডাব করা হয়েছে। এই ব্যান্ডের মাই স্পেস পেইজে বিভিন্ন গানের অডিও ও ভিডিও পাওয়া যাবে।

বিভিন্ন বড় ব্যান্ডও শোয়াইন ফ্লু নিয়ে টাকা কামাচ্ছে: দ্যা আগ্রুপাসিওন কারিনো গেয়েছে ইনফ্লুয়েন্জা কুম্বিয়া গানটি যা ইংরেজীতে ডাব করা হয়েছে আরও বেশী শ্রোতাদের মনোরন্জনের জন্যে। নীচে এই গানের ইংরেজী সংস্করণটি। আপনারা এর নীচেই স্প্যানিশ ভাষার সংস্করণটি দেখা যাবে:

মেক্সিকোর ডুরাঙ্গো থেকে দ্যা বান্দালোজ দল আরেকটি শ্রুতিমধুর ইনফ্লুয়েন্জা সঙ্গীত পরিবেশন করেছে যেখানে তারা এই ভাইরাস থেকে বাঁচতে সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা বর্ণনা করেছে:

মেক্সিকোতে লোকেরা বিভিন্ন ভিডিও প্রকাশ করছে যাতে দেখা যাচ্ছে যে যারা শহরে আছে তাদের তাদের জীবন কেমন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এই ভাইরাস আতন্কের কেন্দ্রে থেকে। শিজো৭৯ নীচের ভিডিও আপলোড করেছে যা মেক্সিকো শহরের রাস্তায় তোলা হয়েছিল। রাস্তায় গুটিকয়েক লোক যা দেখা যাচ্ছে তাদের অধিকাংশের মুখেই মাস্ক পড়া। কিছু লোকের মাস্ক নেই বা গলায় ঝুলছে:

জিমেনা নামের এ্‌ই সুন্দর মেক্সিকান মেয়ে একটি গান লিখেছে যা বর্ণনা করছে তার মত ছাত্রীদের দৈনন্দিন জীবনে এই আতন্ক কিভাবে প্রভাব ফেলেছে। তার সুলিখিত গানের কলি বর্ণনা করছে নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থাগুলো নাগরিকদের জীবনে কি বাধা সৃষ্টি করেছে। তার “আমাদের মাস্ক শেষ হয়ে গেছে” গানের কিছু অংশ নীচে দেয়া হলো (তার ইউটিউব পেজে ইংরেজী অনুবাদ দেয়া আছে):

কোরাস
দুর হও ফ্লু
আমি বাড়ী থেকে বের হতে পারছি না
খবরে বলছে বিশ্রাম নিতে
না না না না
এইসব অমূলক কথা বলো না
পৃথিবীর শেষ হতে এখনও অনেক বাকী

আমাদের মাস্ক শেষ হয়ে গেছে
দরজায় লেখা “নভেম্বর পর্যন্ত কোন টীকা নে”)
মানুষ হয়ে যাচ্ছে উন্মত্ত
সবকিছু কিনে ফেলছে, আমাদের ঘরে পর্যাপ্ত খাবার নেই পর্যন্ত

পানশালা, কনসার্ট, মেলা
শো, জমায়েত এবং রেস্টুরেন্ট
সিনেমা, চায়ের দোকান এবং মুষ্টির দোকান
সব কিছুই নির্বাসিত আমাদের সুরক্ষার জন্যে।

সারা বিশ্বের খবর কি? অস্ট্রেলিয়ায় ইতিমধ্যেই একটি শোয়াইন ফ্লু কেস পাওয়া গেছে। কমিউনিটি চ্যানেলের নাটালি একটি ভিডিও পোস্ট করেছে যাতে মন্তব্য করেছে যে লোকেরা কিরকম পাগলের মত আচরণ করছে যদি কাউকে হাঁচতে বা কাশতে দেখা যায়:

এবং সবশেষে এই্ মনে হয় বাকী ছিল – শোয়াইন ফ্লু নিয়ে ভিডিও গেম তৈরী করা। শোয়াইনফাইটার নামক খেলায় আপনাকে একটি ম্যাপের উপর উড়ে যাওয়া শুকরের দিকে একটি সিরিন্জ তাক করতে হবে এবং নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তাদের কাবু করতে হবে ভাইরাস ছড়ানো থেকে রক্ষা করার জন্যে। আপনি এখানে খেলাটি খেলতে পারেন।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .