বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

জর্ডান: ব্লগার একটি রাষ্ট্রীয় গোপন তথ্য উদঘাটন করেছে

জর্ডানের ব্লগার রামি আব্দেল রহমান তার দেশের সরকারের গোপনে আফগানিস্তানে যুদ্ধে সম্পৃক্ততার ব্যাপারটি উদঘাটন করেছে এবং এ জন্যে তার ব্লগে গোয়েন্দা সংস্থার (ওয়েব) পদচারণা লক্ষ্য করা গেছে।

ঘটনার শুরু কয়েকদিন আগে যখন সুইডেনে বসবাসরত এই আন্তর্জাতিক সাংবাদিক এবং মিডিয়া গবেষক আটলান্টিক ম্যাগাজিনের একটি আর্টিকেল থেকে কিয়দংশ সম্পর্কে মতামত তার ব্লগে লিখেন।ন্যাটোর একটি সম্প্রতি উদঘাটিত দলিল সম্পর্কে এই লেখাতে ছিল যাতে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জর্ডান সরকারের জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া যায়।

আটলান্টিক ম্যাগাজিন অনুসারে এই দলিলে:

“..জর্ডানকে আফগানিস্তানের অবস্থানরত আন্তর্জাতিক সেনাদলের অংশ দেখানো হয়। এবং এতে আরও উল্লেখিত আছে যে জর্ডান ব্যাপরটি গোপন রাখতে চায় আন্তর্জাতিক শোরগোলের ভয়ে।”

এই দলিলে উল্লেখিত অপর আরব দেশ হচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

আব্দেল রহমান লিখছেন:

এই ধরনের সহযোগীতার তথ্য অনেক দিন ধরেই গোপন রাখা হয়েছে জর্ডান সরকারের অনুরোধে, তবে তা সহযোগী দেশগুলো জানে।

এই উন্মুক্ত গোপন ব্যাপারটি সম্পর্কে তিনি লিখেছেন:

ন্যাটো এবং তার মধ্যপ্রাচ্যের সহযোগীদের জন্যে এটি ভাল ছিল না যে এসব দেশের জনগণ সত্য সম্পর্কে জানুক যাতে ভবিষ্যতে এমনিতেই বেরিয়ে পড়বে? লুকোবার এত প্রয়োজন কেন? এতে তো বিপক্ষ দল এ নিয়ে গুজব রটাবে এবং এ নিয়ে রাজনীতি করবে সাধারণ নাগরিকদের সাথে। কেন এদের দুরে রাখা, যখন ওই কাজের জন্যে জনগণের সমর্থন খুবই জরুরী। কেউ কি বলবেন?

পরের দিনই আব্দেল রহমান আরেকটি পোস্ট নিয়ে হাজির হন যেখানে সেই দলিলটির একটি পিডিএফ সংস্করণের লিন্ক ছিল। “জর্ডান যে কথা জনগণকে জানাতে চায়না” নামক লেখাটির ফাইল উইকিলিকস এ হোস্ট করা হয়। এই সার্ভিস বেনামে গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্ট প্রচারে সাহায্য করে।


ডিক্লাসিফাইড ন্যাটো দলিল

তিনি জানাচ্ছেন:

আমি এটি প্রকাশ করছি আইনের দৃষ্টিতে নিরাপদে থাকার জন্যে এবং জনপ্রিয় সাংবাদিক হিসেবে আমার বক্তব্যের সত্যতা প্রচারের জন্যে। আমি দুইদিন আগে ব্লগে প্রকাশ করেছি যে জর্ডান আফগানিস্তানে আন্তর্জাতিক সেনাদলে তার অংশগ্রহণের কথা গোপন রেখেছে।

আব্দেল রহমান আরও জানাচ্ছেন যে প্রথম লেখাটি প্রকাশের পর কিছু অযাচিত পাঠক তার ব্লগে আনাগোনা করেছে:

আমার ব্লগের পাঠকদের পরিসংখ্যান মনিটর করার সময় দেখতে পাই কিছু মজার তথ্য:

ইউ এস আর্মি ইনফরমেশন সিস্টেমস ইন্জিনিয়ারিং কমান্ড (ইউএসএআইএসসি হেডকোয়ার্টার্স) ২৪ মার্চ ৩ বার ভিজিট করেছে, ১৩:৫০:২৪, ১৩:৫০:৩৮ এবং ১৩:৫১:২২ মিনিটে

রয়্যাল জর্ডানিয়ান হাসেমাইট কোর্ট ২৪ মার্চ ১ বার ভিজিট করেছে, ১৫:৩৭:২৯ মিনিটে

জর্ডান গোয়েন্দা বিভাগ (gid.gov.jo) ২৪ মার্চ ১২ বার ভিজিট করেছে, ১৭:২৭:২৭ থেকে ১৮:৩৭:৩২ মিনিটে

এছাড়াও আরও অনেক সাধারণ ভিজিটর ছিল গতকাল এবং আজ। আমি বুঝতে পারছি না এদের কেউ সরকারের পক্ষ থেকে কোন মন্তব্য রাখেনি কেন জর্ডান একে গোপন রাখতে চাচ্ছে যেখানে জর্ডান এই সহযোগীতার গুরুত্ব স্বীকার করে এতে জড়িয়েছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .