বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

আর্জেন্টিনা: কংগ্রেস নির্বাচনের তারিখ এগিয়ে নেয়া

আর্জেন্টিনার কংগ্রেস নির্বাচনের তারিখ এই বছরের ২৫ অক্টোবর নির্ধারিত ছিল। তবে হঠাৎ করে প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিনা ফারনান্ডেজ দে কির্শনার জানিয়েছেন যে তিনি কংগ্রেসে একটা খসড়া আইন পাঠাবেন এই নির্বাচন এগিয়ে জুনের ২৮ তারিখে করার জন্য। যেহেতু সরকারী দল কংগ্রেসের দুটো কক্ষেই সংখ্যাগরিষ্ঠ, এই প্রস্তাব অনায়াসে পাশ হতে পারে। বেশীরভাগ বিরোধী দল এই সিদ্ধান্তের বিরোধীতা করেছে, কিন্তু বাকীরা জানিয়েছে যে তাদের এই ব্যাপারকে সমর্থন করতে কোন বিশেষ অসুবিধা নেই।

পাজিনা ইম্পার ব্লগ অনুসারে বর্তমান প্রেসিডেন্টের স্বামী ভূতপূর্ব প্রেসিডেন্ট নেস্টর কির্শনার “২৮ জুন এ নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের পেছনে ছিলেন, তার দলের কংগ্রেস সদস্যদের সাথে মিটিং এর পরে।” সিদ্ধান্ত দ্রুত নেয়া হয়, আর বুয়েনোস আয়ার্স শহরের সরকার প্রধান, মরিসিও মাক্রি ঘোষনা করেন যে স্থানীয় নিবার্চন ২৮ জুন অনুষ্ঠিত হবে এটাকে জাতীয় নির্বাচন থেকে আলাদা তারিখ দেখিয়ে। এখন সরকারের সিদ্ধান্তের পরে দুইটা একই দিনে হবে।

আর্টেপলিটিকা অনুসারে, এই পরিবর্তনের পেছনে কারন হলো আর্ন্তজাতিক অর্থনৈতিক মন্দা যা আগস্টের পরে আরো খারাপ হবে ধারণা করা হচ্ছে। আরো দুটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে বুয়েনোস আয়ার্স নির্বাচন (যেখানে সরকার মনে করছে বিরোধী দল তাদের নিজেদের মধ্যে ভোট ভাগাভাগি করে চাপ কমাবে) আর সান্টা ফের নির্বাচন, যেখানে পেরোনিজম আন্দোলন একজন প্রার্থীর সন্ধানে আছেন।

ব্রুজিপিডিয়া উল্লেখ করেছে:

Hace una semana Néstor Kirchner pensaba diferente. (…) A los gritos, Kirchner preguntó: “¿Por qué adelantan tanto las elecciones? ¿Qué le pasa a la burocracia política? ¿Tienen miedo de perder que separan las elecciones?”

এক সপ্তাহ আগে নেস্টর কির্শনার ভিন্ন কিছু ভাবছিলেন… তিনি উচ্চকন্ঠে জিজ্ঞেস করেছিলেন: ”কেন তারা নির্বাচন এতো এগিয়ে আনছে? রাজনৈতিক আমলাতন্ত্রে কি ঘটছে? তারা কি হারতে এতো ভয় পায় যে তারা দুটি নির্বাচনকে আলাদা করে ফেলছে?”

এই মন্তব্য ছিল ক্যাটামারকা প্রাদেশিক সরকারের সিদ্ধান্তেকে উপলক্ষ্য করে যারা জাতীয় নির্বাচন থেকে আলাদা করতে তাদের নির্বাচনকে এগিয়ে নিয়ে আসে। এখন তার স্ত্রীর সরকার একই রকমের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আর লা পলিটিকা আল পদের এ তারা জানিয়েছে যে ‘সরকারীভাবে নির্বাচন এগিয়ে নেয়া বিশ্বাসযোগ্য না।” নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের কারন হতে পারে:

el gobierno lo hace por que cree que le conviene y esto es más que suficiente, asume la iniciativa, cambia el escenario y los pone a todos a correr, por que el tiempo es poco, los 225 días faltantes para la elección se redujeron a 100…

সরকার এটা করছে কারন তারা বিশ্বাস করে এটা তাদের জন্য ভালো আর এটাই যথেষ্ট। তারা পদক্ষেপ নেয় পরিস্থিতি পরিবর্তন করে সবাইকে একটা প্রতিযোগিতায় জোর করে অবতীর্ন করে, কারন সময় কম। নির্বাচনের কাউন্টডাউন আগের ২২৫ দিন থেকে কমে ১০০ হয়েছে…

এখন আর্জেন্টিনার সরকারের খসড়া আইন কংগ্রেসে যাবে, যেখানে দুই সপ্তাহের কম সময়ে এটাকে অনুমোদন করতে হবে যদি সরকার নির্বাচনে ডেডলাইন মানতে চায়।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .