বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

আর্মেনিয়া: বিশ্ব এইডস দিবস পর্যবেক্ষণ

১লা ডিসেম্বর, ২০০৮ ছিল ২০তম এইডস দিবস, তবে এই দিবসটি আর্মেনিয়ার রাজধানী ইয়েরেভান এ কম গুরুত্ব পেয়েছিল। কারন এটি এমন এক দেশে পর্যবেক্ষিত হয়েছে যেখানে যৌণ স্বাস্থ্য বা এই ধরনের বিকল্প উপ-সংস্কৃতির মত বিষয়কে মোটামুটি নিষিদ্ধ মনে করা হয়। পিঙ্ক আর্মেনিয়া সারাদিনের কর্মসূচী পোষ্ট করেছে যাতে তিনটি স্থানীয় ব্যান্ডের সংগীত পরিবেশনের কথাও বলা আছে:

১লা ডিসেম্বর, বিকেল ৪টায় আমরা মিলিত হব ভারডান ম্যামিকোনিয়ান ভাস্কর্যের নিকট এবং আমাদের পদব্রজ শুরু করব রিপাবলিক স্কয়্যার পর্যন্ত, এবং তারপর সকলে হাজির হব পুশকিন স্ট্রিটের অ্যাভাগার্ড লোক-ক্লাবে (পুশকিন ৩এ) বিকেল ৫টায় মূল অনুষ্ঠান শুরু করার জন্য, যার মধ্যে থাকবে পান্ক আন্ডারগ্রাউন্ড রক সংগীতানুষ্ঠান, সিনেমা এবং সরাসরি সম্প্রচার। অনুষ্ঠানের সময় আমরা এইচআইভি এবং কনডম বিষয়ক বিভিন্ন তথ্যমূলক আলোচনা করব ।

সম্ভবত সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং ভিতকাঁপানো আর্মেনিয়ার সমকামী ব্লগ, আনজিপড: গে আর্মেনিয়া পুরোদিনের খবরগুলো সংকলিত করেছিল এবং সাথে সাথে গতবছর বিশ্ব এইডস দিবসের পরবর্তী এক বছরের কর্মকান্ড তুলে ধরে যেহেতু সেটি আর্মেনিয়ার এইচআইভি/এইডস এর সাথে সম্পর্কযুক্ত

ইতিমধ্যে, আর্মেনিয়া: উচ্চতর শিক্ষা এবং বিজ্ঞান ব্লগ দেশের জ্ঞাত এইচআইভি আক্রান্তের সাথে সম্প্রতি বৃদ্ধিপ্রাপ্তদের চিত্র তুলে ধরে এবং রোগটির লক্ষণের সাথে যুদ্ধ করার জন্য স্থানীয়ভাবে আবিষ্কৃত একটি ওষুধ সম্পর্কে একটি মিডিয়া প্রতিবেদনের উপর মন্তব্য করে:

আর্মেনিয়াতে প্রথম এইচআইভি আক্রান্তের খবর প্রকাশিত হয় ১৯৮৮ সালে। তারপর থেকে আর্মেনিয়ার এইডস প্রতিরোধ সংস্থার মতে ১৫০ জন প্রাণ হারিয়েছে এইডসে, তার মধ্যে ১২৮ জন পুরুষ এবং বাকী ২২ ছিল নারী। একই প্রতিবেদন অনুযায়ী বর্তমানে ৬৪৯ জন এইচআইভি পজেটিভ রয়েছে। যাই হোক ইউএনএআইডিএস এই সংখ্যাটিকে অবশ্য বলেছে ২৪০০ যার মধ্যে ৬১০ জন নারী। সহজতর, সস্তা এবং অত্যধিক গোপনীয়তায় চিকিৎসা করার মানসে যে সকল আর্মেনিয়ান এইডস/এইচআইভি+ লোকজন দেশত্যাগ করেছে তাদের কোন সঠিক পরিসংখ্যান নেই। […]

এইচআইভি ভাইরাস বিস্তারের প্রধান দুটো কারন হলো অনিয়ন্ত্রিত/উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ বিপরীতলিঙ্গের সাথে সহবাস (৪৯ শতাংশ) এবং শিরায় নেশাদ্রব্য ব্যবহারকারীদের আক্রান্ত সূঁচ ভাগাভাগি করে ব্যবহার (৪৪ শতাংশ)। অন্যান্য কারন এর মধ্যে অনিরাপদ সমকামী সহবাস এবং মা থেকে সন্তানে (জন্মপূর্ব) ভাইরাস স্থানান্তর জনিত কারন ধারন করে বাকী ৭ শতাংশে।[…]

২০০৮ আর্মেনিকামেরও ১০ প্রতিষ্টাবার্ষিকী, যা কিনা তথাকথিত আশ্চর্য ঔষধ। বহুবছর ধরে মানুষ এইচআইভি ভাইরাস দূরীকরনে অভূতপূর্ব ক্ষমতার আর্মেনিয়ার এই আশ্চর্যজনক ফর্মুলার কথা আলোচনা করে আসছে।[…]

এই লেখাটি বলে যে বেশীর ভাগ আর্মেনিয়ানরা যে জিনিসটা জানেনা তাহলো তাদের কর এর টাকা ব্যয় হয় আর্মেনিকামের জন্য, যা কিনা বিশ্বে একমাত্র প্রমানিত এইচআইভি চিকিৎসা, এন্টি রেট্রোভাইরাল (এআরভি) ওষুধের খরচের তিনগুনের বেশী। তারা সম্ভবত এই বিষয়েও সচেতন নয় যে কয়েকমাসের মধ্যেই ভবিষ্যতের এইচআইভি আক্রান্ত রোগীদের জন্য আর্মেনিকাম আর্মেনিয়ার একমাত্র লভ্য পছন্দ হয়ে উঠতে পারে । […]





আলোকচিত্র সমূহের জন্যে কৃতজ্ঞতা :©অনিক ক্রিকোরিয়ান/ ওয়ানওয়ার্ল্ড মাল্টিমিডিয়া ২০০৮, ক্রিয়েটিভ কমনস লাইসেন্স এর অধীনে ব্যবহৃত

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .