বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ভিয়েতনাম: নতুন আইটি কোম্পানিগুলো সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে

গত দুই বছরে, ভিয়েতনামে প্রায় ১০০টি ওয়েব ২.০ স্টার্টআপ (নতুন কোম্পানি) শুরু করা হয়েছে। এর মধ্যে বেশ কয়েকটি প্রকল্প সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে।

আগস্ট ২০০৭ চালু হওয়া ফেসভিয়েত ভিয়েতনামের প্রথম ফেসবুক ক্লোন হিসাবে আদৃত হয়েছে কিন্তু এরই মধ্যে দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার কথা শোনা যাচ্ছে। (অবশ্য ফেসভিয়েতের নির্মাতা এটা অস্বীকার করছেন)। শোনা যাচ্ছে যে ভিয়েতনাম অনলাইন নেটওয়ার্ক ক্রেতা খুঁজছে। ভিয়েতনামের প্রথম পেশাজীবিদের সামাজিক নেটওয়ার্ক সাইভি তাদের ৭৫% কর্মীকে ছাঁটাই করছে।

ফ্রেস্কো ২.০ মনে করেন যে কিছু স্টার্টআপের ব্যর্থতা অবশ্যম্ভাবী ছিল কিন্তু আরো বলেছেন “অর্থনৈতিক মন্দার উপরে এইসব স্টার্টাপের ব্যর্থতার দায় দেয়া অন্যায় হবে।”

হ্যারি ডু অন্যান্য স্টার্টআপের অবস্থা নিয়ে চিন্তিত:

“যদি ফেসভিয়েতের দেউলিয়া হওয়ার কথা সত্য হয়, এটা তাহলে দু:খজনক কিন্তু ভবিষ্যৎবাণী করা যায় ভিয়েতনাম ওয়েব ২.০ বুদ্বুদের একটা অধ্যায় শেষ হবে। এটা অনেক প্রভাব ফেলবে ভিয়েতনামের ১০০টিরও বেশী ওয়েব ২.০ স্টার্টাপের উপরে যারা ভিয়েতনামে একটা টিকে থাকার মতো বাণিজ্যিক মডেল তৈরি করতে চাচ্ছে, বিশেষ করে আজকের অথনৈতিক বিপর্যের সময়ে।”

তিনি ফেসভিয়েতের ভবিষ্যৎ বিশ্লেষণ করেছেন:

“ফেসভিয়েত যথেষ্ট শক্তি অর্জন করতে আর ঝুঁকিবিহীন অবস্থায় পৌঁছাতে ব্যর্থ হয়েছে তাদের দুরদৃষ্টির অভাবের জন্য না… স্থানীয় বিষয়ে অন্তদৃষ্টি না থাকার কারনে ভালো পরিকল্পনাকেও খারাপভাবে কাজে পরিণত করা হয়েছে বিশেষ করে যথেষ্ট অর্থ আর একটা আবেগপ্রবণ ব্যবস্থাপনা দল না থাকার কারনে। যদি ফেসভিয়েত শুরুতেই এই ব্যাপারগুলো দেখতে পারতো, আমি মনে করি ফেসভিয়েত আজকে যা তার থেকে অনেক আলাদা হতে পারতো, আর এটা সত্যি দু:খজনক।”

হ্যারি আর ফ্রেস্কো ২.০ ভিয়েতনামের তেমন কয়েকটি স্টার্টআপকে সনাক্ত করেছেন:

ক্লিপ.ভিএন ভিয়েতনামের প্রথম ওয়েব সাভির্স যা ১০ লাখ ব্যবহারকারী পেয়েছে। সানহাক সব থেকে দ্রুত বৃদ্ধি রেকর্ড করেছে ৬ মাসে ২ লাখ ব্যবহারকারী অর্জন করে। ভিয়েতনামওয়ার্কসকে স্বীকার করা হয় এই পর্যন্ত সব থেকে সফল স্টার্টাপ হিসাবে।

ভিয়েতনামে মাত্র ৩০০০ টুইটার ব্যবহারকারী আছে। কিন্তু টুইটারের মতো প্লাটফর্ম তৈরি করা হয়েছে। যেমনঃ ওলা মি আর লুপফেসভিয়েত ছাড়াও অন্যান্য ফেসবুক ক্লোনের মধ্যে আছে দ্যাজিওইবান.কম আর গুয়োংমাট

ফ্রেস্কো ২.০ দেখেছেন যে ভিয়েতনামে স্টার্টআপের দরকার ভালো মডেল আর সেবা উন্নয়ন করা যাতে আর্থিক স্বনির্ভরতা আসে:

“ওয়েব ২.০ স্টার্টাপ অবশ্যই লোভনীয়, এক সারি নতুন উদ্যোক্তারা সেখানে যখন তখন লাফিয়ে পড়ছে। কিন্তু তারা কি করে অর্থ উপার্জন করবে? তাহলে কি করে তাদের এই সব উঠতি প্রযুক্তিভিত্তিক পণ্য থেকে আয় করবে?

সমাধান এখানে এটাই: অর্থের কথা ভাবার আগে, আগে নিজের সেবার কথা ভাবেন। আমি বুঝতে পারিনা কেন বেশিরভাগ ভিয়েতনামী ব্যবসায়ীরা তাদের পণ্য নিয়ে উত্তেজিত হয়ে পড়েন আর সেটা ব্যবহার করে আমি একই ধরনের উৎসাহ বোধ করিনা। আমি কি সংস্পর্শের বাইরে আছি?”

1 টি মন্তব্য

আলোচনায় যোগ দিন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .