বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

জর্জিয়া: রাজকীয় বিয়ে

১০ শতকের বেশী সময় ধরে জর্জিয়া শাসন করা বাগ্রাতিওনি বংশের দুজনের রাজকীয় বিয়ে গতকাল পৃথিবীব্যাপী দর্শকদের কল্পনাকে ধারন করেছিল। তবে যারা নভেম্বর ২০০৭ সালের অশান্ত পরিস্থিতির পর থেকে ভুতপূর্ব সোভিয়েত এই দেশের গণতন্ত্রের অবস্থা চিন্তা করছিল তাদের জন্যও রাজকুমার ডেভিড বাগ্রাতিওনি-মুক্রানেলি আর রাজকুমারি আন্না বাগ্রাতিওনি- গ্রুজিন্সকির বিয়ে আবার রাজতন্ত্র পুন:প্রতিষ্ঠা করার কথা বিবেচনা করতে সাহায্য করেছে।

গত আগস্টে, উদাহরণস্বরুপ ডেইলি টেলিগ্রাফ ব্লগে জেরাল্ড ওয়ার্নার লিখেছেন যে জর্জিয়ার জন্য একটা সাংবিধানিক রাজতন্ত্র সব থেকে ভালো মডেল হতে পারে।

গণতন্ত্রের পক্ষীয়রা ব্রিটিশ মডেলের রাজতন্ত্র নিয়ে কথা বলছে আর স্পেনের রাজা জুয়ান কার্লোস এর উদাহরণ দিচ্ছে এই ধরনের পুন:প্রতিষ্ঠার যৌক্তিকতা দেখাতে। যা পরিস্থিতি উত্তপ্ত করেছে তা হলো জর্জিয়ার অর্থডক্স চার্চের প্রধান প্যাট্রিয়ার্ক ইলিয়া ২ এর গতবছর অক্টোবর ৭ তারিখে দেয়া একটা ধর্মীয় বাণী যেখানে তিনি খোলাখুলিভাবে রাজতন্ত্র পুনপ্রতিষ্ঠা করার ডাক দেন ‘জর্জিয়ার মানুষের চাহিদার স্বপ্ন’ হিসাবে এটাকে অভিহিত করে। এর ফলে বিষয়টা সংসদে বিতর্কের সম্মুখীন হয়।

রাজ পরিবারের স্বীকৃত প্রধান রাজা জর্জ চতুর্দশ এই বছরের প্রথম দিকে মারা যান, কিন্তু তার ৩২ বছরের ছেলে রাজপুত্র ডাভিতকে তার পূর্বসুরীদের সিংহাসনে আবার আহবান করা যায় ডেভিড তেরো হিসাবে। এই দূর্ভাগ্য জাতি হয়ত এই পবিত্র পুন:উত্থান চায়।

রয়েল ওয়ার্ল্ড এ বিষয়ে একমত:

যেখানে রাজতন্ত্রের ‘রুপকথার মত’ পরিচালনার বিষয় গুরুত্বপূর্ন আর ক্ষুদ্র করে দেখা উচিত না, তার মানে এই না যে রাজতন্ত্রের পূন:প্রতিষ্ঠা জর্জিয়ার বর্তমান বাস্তব সমস্যা সমাধানে কিছুই করবে না। পৃথিবীর অবশিষ্ট রাজতন্ত্র তাদের প্রজাদের জীবনে গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন আনে, কেন জর্জিয়া চাইবে না এদের সমকক্ষ হতে?

তবে ডেইলি টেলিগ্রাফে ব্লগের আরেক লেখক সারা মার্কুস ‌এতে কম সন্তুষ্ট:

এটা সন্দেহজনক যে রাজতন্ত্রের পুন:প্রতিষ্ঠা নিকট ভবিষ্যতে একটি ফ্যান্টাসি ছাড়া আর কিছু হবে। একটা বিপক্ষীয় দল শুধু কিছু শোরগোল করেছে জর্জিয়াকে সাংবিধানিক রাজতন্ত্র করার সমর্থনে তবে অন্য কেউ ব্যাপারটার উপর তেমন গুরুত্ব দিচ্ছে না।

যদিও এখানে বিয়েটা অনেক গুরুত্ব পেয়েছে আর একটি টেলিভিশনে অনুষ্ঠানের ৪০% দর্শক ফোন করেছেন বিয়ের ব্যাপারে আলোচনা করতে যে তারা সাংবিধানিক রাজতন্ত্রকে সমর্থন করে দেশের জন্য, আমি অনেকের সাথে কথা বলেছি যারা মনে করে যে এই ধারণা দেশটার মূল সমস্যা থেকে কিছুক্ষনের জন্য দুরে সরে যাওয়ার মজার একটা উপায়।

কিছু ক্ষেত্রে বাগ্রাতিওনিদেরকে পুন:প্রতিষ্ঠা করার স্বপ্ন আজকের জটিল সমস্যা থেকে পালানোর তাৎক্ষনিক একটা উপায় এমন একটা সময়ের প্রতীক্ষায় যখন জর্জিয়ার গৌরবের দিন আবার ফিরে আসবে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .