বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ব্রাজিল: ই-বুক আর কাগজের বই-এর মধ্যে সত্যিই কি প্রতিযোগীতা শুরু হয়ে গেল?

বর্তমানে সারা বিশ্বে বির্তকের বিষয় হচ্ছে ই-বুক (ইলেকট্রনিক বই) এর উত্থান কাগজের বই-এর পরিসমাপ্তি ঘটাবে কিনা। যারা নতুন প্রযুক্তি নিয়ে উচ্ছসিত এবং পরিবেশবাদী (বিশেষ করে গাছকাটা সমর্থন করে না) তারা এই বিকল্প ব্যবস্থাকে সর্মথন করছে। অন্যদিকে যারা অনেক বেশী স্মৃতিকাতর তারা যুক্তি দেখাচ্ছে যে কাগজের বই হচ্ছে সেরা আবিস্কার। যদি কেউ ইচ্ছে করে তাহলে বিদ্যুত ছাড়াই বই পড়তে পারে। চাইলে সে পাহাড়ের চুড়ায় বসে পাতার পর পাতা পড়তে পারে। তাহলে কি বই পড়ার জন্য এই দুই মাধ্যমের মধ্যে সত্যিই এক প্রতিযোগীতা শুরু হয়ে গেছে?

e-book ব্রাজিলের যে লেখকের বই সারা বিশ্বে সবচেয়ে বেশী বিক্রি হয় সেই পাওলো কোয়েলহো নিজেই ই-বুক এর এক বিশাল সমর্থক। তার মতে বিনে পয়সায় ই-বুক-এর ছড়িয়ে পড়া আসলে কাগজে লেখা বই-এর বিক্রি বাড়তে সাহায্য করে। কারন পাঠকেরা প্রথমে তাদের কম্পিউটারে বইটা পড়তে শুরু করে এবং যখন তারা বই এর মধ্যে ঢুকে যায় তখন তারা বইয়ের দোকানে ঢু মারে সেটি কেনার জন্য। পাওলো কোয়েলহোর কথা কারো ভালো লাগুক বা না লাগুক বাস্তবতা হচ্ছে, তার বই বিক্রির এই পরামর্শ উপেক্ষা করার মতো নয়।

তার নিজস্ব ওয়েবসাইটে তার লেখা পাওয়া যায় এবং সেখানে আটটি আলাদা ভাষায় যে কেউ তার বই পড়তে পারে। এছাড়া বিস্ময়করভাবে একটি বিকল্প ব্লগ রয়েছে যেখানে কোয়েলহোর লেখা অন্যান্য কম পরিচিত ভাষায়ও পাওয়া যায়, যেমন সার্বিয়ান ভাষা। ব্লগার পাইরেট কোয়েলহো ব্যাখা করেছেন:

এটা কোন অন্যায় কাজ নয়। যদি কেউ বিষয়টি ধরতে পারে তাহলে সে বুঝবে আমি আসলে কি বলতে চাইছি। আমি তার (কোয়েলহোর) বই নেটে গুগলড বা খোঁজার ব্যবস্থা করে দিয়েছি। সেখানে আমি দেখিয়ে দিয়েছি কোথায়, কোন জায়গায়, তার বই খুঁজে পাওয়া যাবে।

আমি যা করছি তিনি তা পছন্দ করছেন। যদি কেউ আমাকে বিশ্বাস না করে তাহলে সে নিজেই তা পরীক্ষা করে দেখতে পারে,——— দেখুন তার বই ডাউনলোড করার অংশে আমার পুরোন লিঙ্ক

কিন্তু বিনে পয়সায় ই-বুক পড়ার সুযোগ করা অথবা তার কোন অংশ পড়ার সুযোগ তৈরী করা অন্য ব্রাজিলের লেখকের জন্য কি ভালো ফল বয়ে আনতে পারে? যাদুকর লেখক কোয়েলহো বাদে অন্য লেখকদের মধ্যে কি ই-বুক ও কাগজের বই এর মধ্যে প্রতিযোগীতা চলছে না? ব্রাজিলিয়ান ব্লগোস্ফিয়ারের মধ্যে দিয়ে যদি ইলেকট্রনিক বই এর মহাবিশ্বকে দেখা যায় তাহলে একজন খুব দ্রুতই আবিস্কার করবে যে অজস্র লেখক তাদের লেখা অনলাইনে সহজলভ্য করে রেখেছে। এর উদ্দেশ্য যাতে তাদের লেখা দ্রুত পাঠকের ছড়িয়ে পড়ে। ধীরে ধীরে শুধু এই উদ্দেশ্যে ব্লগ এবং ওয়েবসাইট তৈরী হচ্ছে।

ওভারমুন্ডো (পর্তুগীজ ভাষায়) উদ্যোগ এমন একটি যৌথ প্রচেষ্টা যার উদ্দেশ্য হচ্ছে ছড়িয়ে থাকা ব্রাজিলের সংস্কৃতির যাবতীয় বিষয়কে এক করা। বিশেষ করে যেসব লেখক কোন মুলধারার প্রচারমাধ্যমে প্রবেশ করার সুযোগ পায় না। এই উদ্যোগের মধ্যে একটি হচ্ছে ঘরে বসে সংস্কৃতিক কার্মকান্ড করে যারা তাদের জন্য একটা ডাটাবেজ তৈরী করা। ওভারমুন্ডো ওয়েবসাইটে ওভারব্লগ (পর্তুগীজ) নামে একটি অংশ রয়েছে যেখানে সেই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত বিভিন্ন সাহিত্যকর্ম নিয়ে আলোচনা করা হয়।

রিও গ্রান্ডে ডে সোল -এর একজন মহিলা কবি মি মরটে। তিনি অনেকের মধ্যে একজন যে কিনা তার ই-বুক বের করেছেন। পোয়েমটস নামের এই ই-বুক তার কবিতার বই যা ওভারব্লগে সহজলভ্য (পর্তুগীজ ভাষায়)। অনেক পাঠক তার এই কবিতার বই পড়েছে। তার অন্যতম এক ভক্ত ডান লিমা নীচের মন্তব্যটি ওয়েবসাইটে রেখে গেছেন:

“Me,
Baixei seu livro e li vários dos seus delírios (você se diz gótica, mas aseus textos absolutamente contemporâneos). Uma linguagem moderna., abusada, mulher se afirmando, vociferando, poemas de fino trato…. vou lê-los depois com calma “meu gozo é literário, libertário”, É isso que seus poemas aprovocam: gozo e fruição dos sentidos e das palavras…e muito bonito, esteticamente. Parabéns!”

মি,
আমি আপনার বই নেট থেকে নামিয়েছি এবং আপনার অনেক উন্মাদ করা ভাবনা পড়েছি (আপনি নিজেকে গথিক বলে পরিচয় দেন, কিন্তু আপনার লেখা সবচেয়ে আধুনিক)। আধুনিক, সাহসী, একজন মহিলা যে নিজের আত্মসচেতনতাকে তৈরী করে, জোরালো গলায় জানায়, সবচেয়ে উৎকৃষ্ট মানের কবিতা—- যখনই আমি আমার নিজের জন্য সময় বের করি আমি সেই সব কবিতা পড়ি। আমার আনন্দ সাহিত্যে, উদারতার মধ্যে এবং এটাই আপনার কবিতা আমাকে দেয়। আনন্দ! অনুভুতি ও শব্দের প্রবাহ এবং অসাধারণ সুন্দর এক সৌন্দর্য্য। ভালো লিখেছেন!

lit

এ রকম আরেকটি যৌথ উদ্যোগ হচ্ছে পোর্টাল ফর লিটারেচার এন্ড আর্ট ক্রোনোপায়োস (পর্তুগীজ ভাষায়)। এইটি অনেকটা লাইব্রেরী এবং সাংস্কৃতিক সেন্টারের মিলিত একটা রূপ যেখানে লেখাগুলো অনলাইনে সহজলভ্য এবং ব্লগে থাকে এদের ক্রমঅনুসারে। সেখানে প্রত্যেকটি লেখা একটা বিশেষ আলাদা ব্লগ পায় যাকে বলা হয় ই-ব্লগ, এই ব্লগের নাম তার লেখকের নামে রাখা হয়। যদিও এই সব ই-ব্লগ খুব বেশী পাঠকের মতামত পায় না তারপরেও মনে হচ্ছে অনেক লেখক অন লাইনে বিনে পয়সায় বই বের করতে ইচ্ছুক যদি পাঠকরা সেই বই পড়তে ইচ্ছে প্রকাশ করে। নিকোলাস বের কর্তৃক (পর্তুগীজ ভাষায়) প্রকাশিত এক ব্লগ ব্রাসিলডা। তার লেখা উৎসাহী পাঠকদের কাছ থেকে সাড়া পাচ্ছে।

এই সমস্ত উদ্যোগ-এর বাইরে কিছু লেখক রযেছে যারা ব্লগ করছে এবং সেখানে তাদের লেখা প্রকাশিত করছে অথবা তার অংশ হিসেবে স্বাধীনভাবে অনলাইনে তাদের পাঠকদের জন্য লেখা প্রকাশ করছে। বেশ কিছু বিখ্যাত ব্রাজিলিয়ান কবি ঠিক এই কাজটি করছে যেমনটি করছে কবি ফ্রেডরিকো বারবোসা (পর্তুগীজ ভাষায়)। তিনি তার সকল লেখা ই-বুক হিসেবে ইন্টারনেটে সহজলভ্য করেছেন। এমনকি তার অনুবাদও ইন্টারনেটে সহজলভ্য। তবে তারপরেও তিনি যারা তার বই কিনতে চায় তাদের জন্য তার কাগজের বই কোন দোকানে কিনতে পাওয়া যাবে তার ঠিকানাও যুক্ত করে দিয়েছেন। এক নিশ্চিত পেশায় থেকে তিনি ইলেকট্রনিক -প্রকাশনা ও কাগজের প্রকাশনার মধ্যে কোন বিরোধ দেখছেন না। তার মূল লক্ষ্য তার কবিতা যে ভাবেই হোক পাঠকের কাছে পৌছানো।

ক্লদিও ড্যানিয়েল হচ্ছে ব্রাজিলের আরেকজন বিখ্যাত কবি। তিনি তার কবিতার বই ইয়ুমির দ্বিতীয় সংস্করন বের করার জন্য প্রস্তুতই নিচ্ছেন। তার একটি কবিতা নেটে পাওয়া যাচ্ছে (পর্তুগীজ ভাষায়) তার বইয়ে কবিতার স্বাদ কেমন হবে তা বোঝার জন্য ।

Caros, no dia 25 de janeiro, domingo, a partir das 16h, na Casa das Rosas, acontecerá o lançamento da segunda edição de meu livro Yumê (…) Quem estiver vivo até lá, apareça… confiram abaixo um dos poemas de Yumê:

O UM IGUAL A ZERO

em
londres
(no metrô) — primícias
de agosto —
(alguém) lendo Schopenhauer
uma moça com cabelos verdes
e os bicos (dos seios) cor-de-rosa
o (azul-prata-seda)
luxuosíssimo traje marroquino
e a lâmina — argêntea —
do assassino

প্রিয় সকলে, জানুয়ারীর ২৫ তারিখে রোববার ৪.০০ টার সময় কাজা ডাস রোসাস-এ একটি বই এর দ্বিতীয় সংস্করনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে, যা আমার ইয়ুমি (—-)। সে সময় পর্যন্ত যারা জীবিত থাকবেন, তারা আসবেন অনুগ্রহ করে! নীচে ইয়ুমি থেকে একটা কবিতা পাঠকদের রস আস্বাদনের জন্য দেওয়া হল:

এক সমান শুন্য

একদা
লন্ডনে
(মেট্রোর মধ্যে)— তখন
আগষ্ট মাসের শুরু
(কেউ একজন) পড়ছে শোপেনহাওয়ার
সবুজ চুলের এক বালিকা
এবং তার গোলাপী (স্তন) চুড়া
(নীল-রূপালী সিল্কে) বোনা
মরোক্কার তৈরী নিখুঁত পোশাক
রূপোর মতো চকচকে চাকু
তার খুনীর হাতে।

এমনকি নতুন লেখিকারাও যেমন ডেবরাহ ইকামিআবা (হ্যা আমিই সে!) তার সকল লেখা অনলাইনে সহজলভ্য করছেন। এটি তিনি করেছেন এক যৌক্তিক কারণেই। তার সাহিত্য ব্লগে (পর্তুগীজ ভাষায়) তিনি নিয়মিত তার লেখা গল্প, বিশেষ ঘটানবহুল রচনা এবং কবিতা প্রকাশ করতেন, সেখানে তার লেখা চারটি লম্বা শিরোনাম ওয়ালা ই-বুক পিডিএফ ফরমেটে পাওয়া যাবে। যার ভেতরে রয়েছে দি ইনসাইড আওয়ারসেলফস শর্ট স্টোরি, দি নভেলাস ইকামবিয়াস, মিড ওয়েস্ট আলকেমি এবং দি পোয়েট্রি : প্রি পেয়েট্রি, (কখনও কবিতা,গদ্য কবিতা এবং শৌর্যমূলক লেখা থাকবে) এদের প্রত্যেকটির ইলেকট্রনিক উদ্বোধন হয়েছে। বইগুলোকে ভার্চুয়াল বা অনলাইন বইয়ের তাকে রাখা হয়েছে। তার সাথে জুড়ে দেওয়া হয়েছে এই বাণী:

“Para obter este ou qualquer e-livro em PDF, deixe um post no blog.”

“কোন একটি ই-বুক পিডিএফ ফরমেটে পড়তে চাইলে এই ব্লগে একটা মন্তব্য করুন”

tতার ব্লগে প্রতি মাসে শতশত পাঠক প্রবেশ করে। তবে খুব বেশী পাঠক তার ই-বুক এর জন্য আগ্রহী হয় না। যতদুর জানা যায় তার সবচেয়ে সফল বই দ্যাট অফ দ্যা কালেকশন অফ শর্ট স্টোরিজ ইনসাইড আওয়ারসেলফ (ডানের প্রচ্ছদ) এর জন্য সে ১৩ টি মন্তব্য পেয়েছে। এটি আমাদের ভাবতে বাধ্য করে যে ব্লগ পাঠকেরা সব সময় লম্বা এবং অনেক বেশী শব্দপূর্ণ লেখা পড়তে আগ্রহী নয়।

অনলাইনে ই-বুক ছাড়ার পরও ইকামিআবা কাগজের বই ছাপানো বন্ধ করেনি। ২০০৮ সালের শেষে দুই প্রকাশনা সংস্থা তার অনলাইনে পাওয়া লেখাগুলো সংকলিত করে বই ছাপানোর আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

সবশেষে এটা না বলা অন্যায় হবে যে ব্রাজিলের সরকার এক বিশেষ ওয়েব সাইট তৈরী করেছে যাতে পর্তুগীজ ক্লাসিকাল সেরা লেখকদের যেমন মাকাদো ডে আসিস এবং ফার্নান্ডো পেসসোয়ার লেখাও পাওয়া যাচ্ছে। যদিও তাদের লেখা বই দোকানে এবং সংবাদপত্র এজেন্টের কাছে পেপারব্যাক বা ছোট সংস্করণে পাওয়া যায়।

ব্রাজিলিয়ান লেখক, প্রকাশনা সংস্থা এবং সরকার এখন ইন্টারনেটে থাকা সাহিত্যগুলোর উপর গুরুত্ব দিয়ে তাদের সংরক্ষণ করার উদ্যোগ নিয়েছে এই দেখে যে, এখন বইয়ের এই দুটি মাধ্যমের এক হয়ে যাওয়ার বিষয় রয়েছে। প্রতিযোগীতার চেয়ে ডিজিটাল এবং কাগজের মিডিয়া পরস্পরকে সাহায্য করতে পারবে এমন এক সময় যখনও লোকেরা কাগজের বই পড়বে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .