বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

মিশর: টাকা সোনায় রুপান্তরিত করবে কি করবে না

মনে হচ্ছে আমেরিকার বাজারকে তোল মাচাল করা অর্থনৈতিক মন্দা বিশ্বের সর্বত্র মানুষকে অসুবিধায় ফেলছে- এমনকি যারা ব্যবসা করে না এমন সাধারণ মানুষেরও প্রতি দিনের সিদ্ধান্তে এটি প্রভাব ফেলেছে।

জেইনোবিয়া এখানে লিখেছে কি করে কিছু লোক সিদ্ধান্ত নিয়েছে মিশরের বিদেশী ব্যাঙ্ক থেকে তাদের টাকা তুলে নিয়ে সেই টাকা সোনা কেনায় লাগাতে। এই ব্লগার ব্যাখ্যা করেছে:

মন্ত্রী আর কর্মকর্তারা মানুষকে শান্ত করার জন্য এখানে সেখানে এই বলে আসছে যে দেশের অর্থনীতি ভালো অবস্থায় আছে আর তাদের খুব ভালো একটা সুযোগ এসেছে ওয়াল স্ট্রীট থেকে বেরিয়ে আসা গাল্ফ অঞ্চলের টাকাকে আকর্ষণ করার!! কর্মকর্তারা যা খুশি তাই বলতে পারে, কিন্তু মনে হচ্ছে আমেরিকা আর ইউরোপে বেইলআউট আর অন্যান্য জাতীয়করন প্রচেষ্টার ফলে যে অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে তার প্রভাব মিশরেও পড়ছে। আমি খবরে পড়েছি আর আত্মীয়রা যারা মিশরীয় ব্যাঙ্কে কাজ করে তাদের কাছ থেকেও শুনেছি যে মিশরীয় বিনিয়োগকারীরা বিদেশী ব্যাঙ্ক বিশেষ করে সিটিব্যাঙ্ক থেকে টাকা তুলে নিচ্ছে। সমস্যা হচ্ছে তারা এটা অন্য কোন জাতীয় বা বিদেশী ব্যাঙ্কে জমা করছে না, তারা টাকা নিয়ে সোনা কিনছে।

মিশরীয়রা অর্থনৈতিক সমস্যা হলেই সোনা কেনাতে অভ্যস্ত। এটা একটা প্রথা, সময়ের সাথে সোনা বেশী নিরাপদ, টাকার মতো এতো দ্রুত এর দাম পড়ে যায় না।

আমার মনে হয় আমাদের অর্থনীতির বিশেষজ্ঞদের দরকার এর কি প্রভাব ব্যাঙ্ক আর দেশের সমগ্র অর্থনীতির উপর পড়বে সেই ব্যাপারটা বোঝার জন্য।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .