বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কার্বন ফুটপ্রিন্ট ক্যালকুলেটর

গতমাসে গ্লোবাল ভয়েসেস এনভায়রনমেন্ট (পরিবেশ শাখা) দৃষ্টি দিয়েছিল মানচিত্র, অনলাইন গোষ্ঠী এবং কার্বন ফুটপ্রিন্ট ক্যালকুলেটর এর দিকে। এরপরে নতুন নতুন আরো ক্যালকুলেটর (গণক) আত্মপ্রকাশ করেছে এবং মানুষের কার্বন নির্গমণ হিসাব করার জন্য এই পোস্টে আমরা এমন কিছু নতুন টুল তুলে ধরেছি:

পিইআইআর – পারসোনাল এনভায়রনমেন্ট ইমপ্যাক্ট রিপোর্ট

পিইআইআর কেবলমাত্র একটা কার্বন ফুটপ্রিন্ট ক্যালকুলেটর নয়, আপনার নিজের পরিবেশগত প্রভাব এবং প্রকাশ সম্বন্ধে বিস্তারিত ও নিজস্ব প্রতিবেদন দেবার জন্য এটার রয়েছে আরো উন্নততর সংস্করণ। জিপিএস (গ্লোবাল পজিশনিং স্যাটেলাইট) এর সামর্থ্য এবং মোবাইল ফোনের এক্সেলেরোমিটারস ব্যবহার করে এটি তথ্য সংগ্রহ করে। যখন আবহাওয়া সম্বন্ধে জানায় তখন তা বাতাসের (কুয়াশার) বিভিন্ন কণিকাকেও নিদৃষ্ট করে দেখায় এবং অন্যান্য পছন্দও বাতলে দেয় যেমন কি খাদ্য খেতে হবে, আমরা চারপাশে যা দেখি এসব দিয়েও যা প্রভাবিত হতে পারে। কার্বন নিগর্মন ছাড়াও আরো অনেক বিষয় বিবেচনা করতে সাহায্য করে। যদি আপনি আপনার এলাকার ফাস্টফুড রেস্টুরেন্টগুলোর সংখ্যা জানেন তা কি আপনার পছন্দকে প্রভাবিত করবে?

ক্যালির্ফোনিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর এমবেডেড নেটওয়ার্ক সেনসিং এ পিইআইআর তৈরী হয়েছে এবং এখন পরীক্ষাধীন পর্যায়ে।

নিচের ভিডিওটিতে পিইআইআর এপ্লিকেশন সম্বন্ধে একটা সম্যক ধারণা পাওয়া যাবে:

অন দ্যা কার্বন স্ম্যার্ট ব্লগে রোরি আরেকটা কার্বন ফুটপ্রিন্ট ক্যালকুলেটরের কথা তুলে ধরেন:

কার্বন ডিয়েম

নতুন মোবাইল ফোনের জিপিএস তথ্য ব্যবহার করে কার্বন ডিয়েম কাজ করে। রোরি এ সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরেছেন:

লন্ডন ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান কার্বন ডিয়েম তৈরী করেছে বিশ্বের প্রথম স্বয়ংক্রিয় কার্বন ক্যালকুলেটর যা একটা সফটওয়ার ব্যবহার করে আপনার জিপিএস নির্ভর মোবাইল ফোনকে ট্রাকারে পরিণত করবে এবং চিহ্নিত করবে আপনার হন্টন, গাড়ী চালানো, আকাশ পথে ভ্রমণ – এবং প্রতিটা অবস্থায় আপনি যে পরিমাণ ভ্রমণ করেন সেটা হিসাব করে আপনার কার্বন প্রভাব নির্ধারণ করে। আপনাকে কিছুই করতে হবে না। করবেন কি?

একজন মানুষ যদি তার কার্বনের প্রভাব জেনে যায় তা কি তার জীবনপদ্ধতি পরিবর্তনে আবেদন তৈরী করবে, এ বিষয়ে রোরি তার চিন্তা তুলে ধরেছেন:

যেভাবে মোবাইল ফোন এপ্লিকেশন গুলো তৈরী হচ্ছে, ভবিষ্যতে এই ধরণের টুলগুলোর সাথে কোন লাভজনক পরিকল্পনা যুক্ত হবার সুযোগ থাকবে তবে এখন এগুলো নি:স্বার্থই আছে।

আর কোন কার্বন ফুটপ্রিন্ট ক্যালকুলেটর সম্বন্ধে আপনার জানা আছে? আপনার ফোনে এটা কি ব্যবহার করবেন?

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .