বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কোরিয়াঃ হানগিউল ঘোষণা দিবস

৯ই অক্টোবর ছিল কোরিয়ার লিখন পদ্ধতি [হানগিউল] প্রবর্তন দিবস। জাতীয় ছুটি দিবস হিসাবে দিনটিকে বাতিল করার পর থেকে প্রতি বছর লোকজন পুনরায় দিবসটিতে জাতীয় ছুটি ঘোষণার দাবীতে সরব হয় ওঠে। যেন কোরিয়ান বর্ণ তৈরীর এই ঐতিহাসিক ক্ষণটির তাৎপর্য্য মানুষজন উপলবদ্ধ করে। কোরিয়ার সমাজে ইংরেজীর উপরে বেশী গুরুত্ব প্রদর্শিত হওয়ায় নেটনাগরিকরাও তৎপর হয়েছে, এ বছরের বর্ষপূর্তি নিয়ে তারা তাদের অভিমত ব্যক্ত করেছেন।

দেশীঙলগ উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন:

한글, 우리나라 글 맞는 걸까?

아름다운 한글 창제를 기리는 562돌 한글날을 맞이했다. 한 나라의 언어이자 그 우수성을 세계에서 인정받은 우리의 한글. 지난 해 561돌 한글날을 맞이하여 “한글날이 왜 공휴일이 되어야 하는가?”글을 통해서 한글날이 국가 공휴일로 지정되어야 하는 필요성을 시사하기도 했었다. 그러나 정작 정부는 이러한 의미깊은 한글날을 국가 공휴일을 지정하려는 움직임은 전혀 보이지 않고 있고, 또한 모든 국민들이 한글의 우수성을 고취시키고 한글 문화 향상을 위한 노력도 미약하기만 하다. 옛 선조들이 나랏글이 없어 서러움을 받을 백성과 후손들을 위해서 세계의 문화유산으로 인정받을 만큼 우수한 나랏글인 아름다운 한글을 창제해 물려 주었으나, 그 소중한 문화유산을 널리 기리고 육성하지 못하고 오히려 외국어 보급과 육성에 국민의 혈세를 투입하고 있으니 선조들께 후손으로 송구스럽고 부끄러울 마음이 앞선다. 어제 오후에 발행된 경향신문 보도자료 “영어엔 1861억, 한글엔 119억… 예산 24배 차이” 란 기사를 읽으면서 그 실망감이 너무 커 어이상실할 지경이었다. 영어 교육 사업에 눈 먼 대한민국 정부를 향하여 자국어인 한글의 가치와 한글이 어느 나라 말인지? 를 되묻고 싶은 심정이다. 물론 글로벌 경쟁력 향상을 위한 영어교육에 힘쓰는 것도 나쁘지 않다고 생각하지만, 자국어인 한글도 제대로 모르면서 외국어인 영어만 잘하면 글로벌 경쟁력은 절로 강화되는 것은 분명 아니라고 생각한다. 또한 영어를 못해서 지금까지 대한민국이 글로벌 경쟁력이 떨어졌다고도 생각되진 않는다.
국민의 세금으로 조성된 예산을 지자체들은 앞다투어 영어마을 건립과 원어민교사 지원에 쏟아 붓고 있다. 더군다나 16개 광역지자체 중5개 지자체는 아예 한글 사업에 땡전 한 푼 예산을 배정하지 않고 있어 주객이 전도된 정부의 정책일로를 바라보는 국민들의 반감을 사기에 충분하고, 외국인의 눈에는 이런 정부의 정책이 이해되지 않는 되지 않는 나라로 비춰지진 않을까? 적지 않은 우려감도 앞선다. 그렇다면 562돌 한글날을 맞아 국내 포털들과 미디어, 그리고 민간단체들이 앞다투어 대대적 한글날 관련 행사로 분주했음에도 불구하고 정부 부처의 인터넷 홈페이지는 어떤 모습일까?

হানগিউল কি আদপেই আমাদের জাতীয় ভাষা লিপি?

আমরা হানগিউল ঘোষণা দিবসের ৫৬২তম বর্ষপুর্তি উদযাপন করলাম। একটা জাতির ভাষা হিসাবে হানগিউল বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত। গত বছর ৫৬১ তম হানগিউল ঘোষণা দিবস উদযাপনকালে “কেন হানগিউল ঘোষণা দিবসকে জাতীয় ছুটি ঘোষণা করা হবে?” শীর্ষক একটা পোস্ট দিয়েছিলাম এবং ব্যাখ্যা করেছিলাম কেন দিনটিতে জাতীয় ছুটি ঘোষণা করা প্রয়োজন। যাই হোক সরকার মনে হয় না এমন তাৎপর্য্যপূর্ণ দিবসকে জাতীয় ছুটি ঘোষণা করবে। তাছাড়া হানগিউল এর শ্রেষ্ঠতা অন্যদের অণুপ্রাণিত করতে এবং এর সংস্কৃতির বিকাশের জন্য মানুষজনেরও তেমন উদ্যোগ পরিলক্ষিত হয় না। আমাদের পূর্বসূরীরা এদেশের মানুষ ও উত্তরসূরীদের স্বীয় ভাষা উপহার দেবার জন্য হানগিউল উদ্ভাবন করেছিলেন। অথচ আমরা এই ঐতিহ্যমন্ডিত ও মূল্যবান সংস্কৃতির প্রশংসা ও চর্চা করি না; উপরন্তু ভিনদেশী ভাষার প্রসার ও বিকাশের জন্য অর্থ অপচয় করি। আমি পূর্বসূরীদের কাছে লজ্জিত ও দুঃখিত। কুনঘিয়াঙ পত্রিকার একটা সংবাদ “১৮৬.১ বিলিয়ন ইংরেজীর আর ১১.৯ বিলিয়ন মাত্র কোরিয়ার জন্য” [কোরিয়ানে], পড়ে হতাশায় স্তম্ভিত হয়ে গেছি। সরকারের কাছে আমি হানগিউলের মূল্য জানতে চাই। এটা সত্যি যে বৈশ্বিক প্রতিযোগিতামূলক ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য ইংরেজী শিক্ষা আমাদের জরুরী। তবে ইংরেজীতে ভাল কথা বলতে পেরে যদি আমরা কোরিয়ানে ভালভাবে কথা বলতে না পারি আমি মনে করি না যে বৈশ্বিক প্রতিযোগীতামূলক বাজারে আমাদের ক্ষমতায়ন ঘটবে। স্থানীয় শায়ত্বশাসিত কর্তৃপক্ষ জনগনের করের অর্থে স্থানীয় ইংরেজীভাষী গ্রাম প্রতিষ্ঠার বাজেট তৈরীতে ব্যস্ত । অন্যদিকে ১৬টা স্থানীয় শায়ত্বশাসিত কর্তৃপক্ষের মধ্যে ৫টিও কোরিয়ান ভাষা হানগিউল বিকাশের জন্য কোন অর্থ বরাদ্দ রাখে নি। সরকারের আচরণ মনে হচ্ছে “ঘোড়ার আগে গাড়ী জুড়ে দেয়ার” মত। এখানের মানুষ ও বিদেশীরা সরকারের নীতি সম্বন্ধে কি ভাবে? বর্ষপূর্তির জন্য ইন্টারনেট পোর্টাল সাইটস, মিডিয়া, এবং বেসরকারী সংস্থা নানা আয়োজনে ব্যস্ত ছিল। কিন্তু সরকারি ওয়েবগুলো কি করছে?

কেন নেটনাগরিকরা বিচলিত?

대화를 하거나 글을 쓸 때, 외국말을 섞어 사용하는 사람들 심상치 않게 볼 수 있다. 무턱대고 비난할 수 없다. 나 역시 예외일 순 없으니까. 교육, 기술, 문화 환경 등 다양한 요소에 의해 외국말에 쉽게 노출 된 상황에서 사용 빈도는 늘어나는 건 필연적이고 사람마다 선호하는 언어가 같을 수가 없으니, 자유주의 국가에서 무조건 언어 사용시 모국어만 사용하게 만들 수 없다. 그렇다고 외국말의 지나친 남용을 눈뜨고 지켜보자는 이야기가 아니다. 뭔가 괴상한 국적 불명의 외래어를 자제하고 우리말을 사랑하고 정확하게 사용하게끔 유도해 나가야 되지 않나 생각된다. 이런 일은 가정, 학교 그리고 사회 곳곳에서 일어나야 된다고 생각한다. 그렇다고 외래어를 무조건 한국어로 바꿔서 가르키고 사용하자는 것은 아니다. 자국엔 없고 외국에서만 있던 혹 만들어진 개념을 우리나라 말로 억지로 만들어 오히려 의미전달을 떨어뜨리는 것 보다 그대로 사용하게는 나을 수도 있다. 다만, 무분별하게 사용되는 외래어 사용을 자제하자는 것이다. 너에게 들려주는 스토리, 패밀리가 떴다와 같은 국적 불명의 합성어, 외국어 발음 그대로 적어놓거나 병행 표기도 아닌 외국어로만 표기해 놓은 간판. 한 미국인이 고개를 갸우뚱하며 이런 말을 한 적이 있다. 왜 한국제품들 이름을 보면 전부 영어를 사용하냐고, 왜 한국어를 사용하지 않냐고. 물론 언어가 어느 정도 유연성이 있어야 외부에서 오는 충격도 받아내고 앞으로 다가올 시대에 대비할 수 있다고 생각되어지나, 굴러온 돌이 박힌 돌을 빼내는 주객전도 상황이 일어나선 안된다고 생각한다. 요즘 너무 심하다.

যারা কথা বলা বা লেখার সময় বিদেশী শব্দ মিশিয়ে ফেলে তেমন লোক খুঁজে পাওয়া খুবই সহজ। আমরা তাদের দোষ দিতে পারি না কারণ আমিও এর ব্যতিক্রম নই। বিভিন্ন জায়গায় যেমন শিক্ষা, প্রযুক্তি এবং সংস্কৃতির অঙ্গনে আমাদের জীবন বিদেশী শব্দে বিশেষভাবে প্রকাশিত হয়। প্রত্যেকটা মানুষই তার নিজস্ব পছন্দনীয় শব্দ ব্যবহার করে। একটা উদারনৈতিক দেশে কোন মানু্ই তার মার্তৃভাষা ব্যবহারকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না। তার মানে এটা নয় যে বিদেশী শব্দের অত্যধিক ব্যবহারকে আমরা অগ্রাহ্য করব। বরঞ্চ অদ্ভুত ও অপরিচিত জাতীর ভাষা ব্যবহার থেকে সতর্ক হওয়া উচিত। আমাদের ভাষার মূল্য সম্পর্কে ও তা সঠিকভাবে ব্যবহার করতে মানুষজনকে উদ্বুদ্ধ করা উচিত। এটা শুরু করতে হবে বাড়ী, বিদ্যালয় এবং সমাজ থেকে। তার মানে এই নয় যে কোন প্রশ্ন ছাড়াই আমরা ধারকরা শব্দগুলোকে কোরিয়ার ভাষায় পরিবর্তন করে ফেলবো। তেমন হলে শব্দের ভুল ও দুর্বল প্রকাশ দেখা যেতে পারে। কিন্তু ধার করা শব্দের অপব্যবহার নিয়ন্ত্রণে আমাদের স্বনিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে হবে। সাম্প্রতিককালের বিখ্যাত টিভি প্রোগ্রামগুলোতে আমরা যৌগিক শব্দ ব্যবহার করি যেমন ‘নিও-ই-গি ডিউল-রাইয়ো-জু-নিউন স্টোরি’ (গল্প যা আমি তোমাকে বলতে চাই) এবং ‘ফ্যামিলি গা ডিউট-ডি’ (পরিবার আবির্ভূত) ইত্যাদি। কোরিয়ান ভাষা ছাড়া বোর্ডসাইনগুলো বিদেশী ভাষায় উৎকীর্ণ। একজন আমেরিকান আমাকে জিজ্ঞেস করেছিলেন তোমাদের জিনিসপত্রের নাম কোরিয়ানে না লিখে কেন ইংরেজীতে লেখা হয়। এটা ঠিক যে ভাষাকে অনেক উদার হতে হয় যেন আমরা ভবিষ্যতে বাইরের মানুষজনকে চমকে দিতে আরো বেশী উদার হতে পারি। কিন্তু “ঘোড়ার আগে গাড়ী জুড়ে দেয়া” হলে যেমন নুতন পাথর লাথি মেরে হটিয়ে দিতে পারে পুরাতন পাথরকে, তেমনও ঘটতে পারে। সাম্প্রতিককালে এটা অত্যাধিক মাত্রায় দেখা যাচ্ছে।

জাতীয় ছুটি হিসাবে কেন দিবসটিকে বাতিল করা হলো?

1991년에 한글날이 공휴일에서 제외되었다. 당시 이유가 다른 나라에 비슷한 경우가 없다는 것이었다. 이해가 되지 않는 이유다 […].

১৯৯১ সালে হানগিউল ঘোষণা দিবসে জাতিয় ছুটি বাদ দেয়া হয়। কারণ ছিল এই অন্য কোন দেশে এমন কোন জাতিয় ছুটির দিবস নাই। আমি সত্যিই বুঝি না .. […]

রাষ্ট্রপতির ভুল নেটনাগরিকরা ভুলে যেতে পারে না।

오늘이다. 제 562번째 한글날. 세종대왕님께서 ‘나랏말싸미 쭝궈와 달라…’ 고민하시며 한글을 창제하신 역사적인 사건을 기념하는 날. 오늘 본인은 영어몰입교육을 국어교육보다 중시하는 사태에 한번 슬프고, 한글 창제국의 대통령의 오타에 또 한번 슬프다. (그러나 솔직히 말하자면 공휴일이 아닌점이 제일 슬프다 -_-;) 어쨌든, 오늘만이라도 우리는 한글을 사용하고 있다는 점에 감사하고 또 감사해야 한다.

অদ্য সেই দিবস। হানগিউল ঘোষণা দিবসের ৫৬২তম বর্ষপূর্তি। এই দিবসে সেই ঐতিহাসিক ক্ষণটিকে উদযাপন করা হয় যখন সম্রাট সেজং হানগিউল তৈরী করলেন এই কারণে “যে ভাষা আমরা ব্যবহার করি তা চীনাদের ব্যবহার থেকে এসেছে…”. আজকে আমি দুঃখিত এই কারণে যে কোরিয়ান ভাষা নির্ভর শিক্ষাব্যবস্থার চেয়ে ইংরেজী নির্ভর শিক্ষা বেশী গুরুত্ববহ হয়ে উঠেছে (সৎভাবে বলতে গেলে, আমি যে কারণে সবচেয়ে বেশি দুঃখিত তা হলো জাতীয় ছুটি হিসাবে এটাকে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে না)। খারাপ লাগছে এজন্য যে জাতির প্রতিনিধি এমন একজন ব্যক্তি ভুল বানানে হানগিউল লিখলো। সে যাক আজকে আমাদের প্রশংসা করতেই হবে যে আমরা এখনও হানগিউল ব্যবহার করি।

ইংরেজির সাথে একজন নেটনাগরিকের কথোপকথোন:

그래, 잉글리쉬 너 잘 다들랬다. 오늘 마침 한글날인데, 내 니 본짐에 한마디 하꾸마. 니는 우찌된기 이나라 사람들을 그리 괴롭히노? 니 때문에 골머리를 앓는 사람이 몇이며 쏟아 붓는 돈이 얼매고? 심지어는 샛바닥을 째가며 몸까정 혹사시키는 아들도 있다카더만. 올 봄에는 또 니한테 모든거를 몰입한다고 캐가꼬.이나라 정치계, 교육계를 발칵 카디메 놓티마는 얼마전에는 또 니를 모리마 골프도 몬치게 한다 카대. 니를 쓰는 사람들은 골프를 말로 치나?으이? 기가 막힌다. 언어란기 뭐꼬?사람들이 원할하이 소통할라꼬 있는지 언어 아이가?사람들 괴롭힐 라마 있을 이유가 없다 아이가?오죽하마 니를 씹어무가메까지 그 한을 삭힜던 사람이 어디 한 둘이가?[…]

এই যে ইংরেজী.. আজ তোমাকে পেয়েছি। জানো তো আজ হানগিউল ঘোষণা দিবস। এ দিনেই তোমার সাথে কথা বলতে চাই। কেন তুমি আমাদের দেশের মানুষকে এত যন্ত্রণা দিচ্ছো? তুমি কি জানো তোমার জন্য এদেশের মানুষের কত দুর্ভোগ পোহাতে হয়? তোমার পেছনে কত খরচ হয়? এমনকি কিছু মানুষ তাদের বাচ্চাদের জিভ চিড়ে ফেলে ভাল ইংরেজীর শেখাতে গিয়ে। এই বসন্তে তোমার নির্ভর শিক্ষা কর্মসূচি নিয়ে মানুষজন বলাবলি করছিলো। এজন্য রাজনৈতিক ও শিক্ষা সেক্টর বিশৃঙ্খল হয়ে উঠেছে। তারপর আবার শুনলাম তোমাকে যদি আমরা ভালমত না জানি, গলফও নাকি খেলতে পারবো না। যারা তোমাকে ব্যবহার করে তারা কি মুখ দিয়ে গলফ খেলে? আমি স্তম্ভিত। ভাষা কি? ভাষা কি মানুষের যোগাযোগ সহায়তার জন্য নয়? এটা যন্ত্রণা দেবার জন্য নয়। এমনকি কিছু মানুষ তাদের যাতনা দূর করার জন্য তোমাকে চিবুতে থাকে। একসময় একটা কথা প্রচলিত ছিল যে কিছু শিক্ষার্থী ইংরেজী বিশ্বকোষের প্রতিটা পাতার শব্দ মুখস্থ করে ফেলে এবং যে পৃষ্ঠাগুলো পড়া হয়ে যায় তা খেয়ে ফেলে (সম্পাদক) – […]

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .