বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ক্যামেরুন: মহিলা ব্লগাররা যাত্রা শুরু করেছে

শিক্ষা থেকে স্বাস্থ্য, ফ্যাশন, শিল্প আর সংস্কৃতি আর মহিলাদের ক্ষমতায়ন ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ে ক্যামেরুনিয়ান মহিলারা তাদের গল্প ওয়েবে বলছে। যেমন ইংল্যান্ডের ম্যাঞ্চেস্টারে বসবাসরত বেটি তার গর্ভধারন নিয়ে বেটিস প্রেগ্নেন্সী ডায়রীতে লিখছে। ৩৪ তম সপ্তাহে সে বর্তমান বাজারের অর্থনৈতিক মন্দা নিয়ে চিন্তা করছে:

অর্থনৈতিক মন্দা আমাদের মাথার উপরে বোমার সাইরেনের মতো ঝুলছে। তাই আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে এটা হালকা ভাবে নেয়া যাবে না। খেয়াল করবেন, ফ্যাশনের বাইরে সশব্দে আমার মাল্টিজার খেয়ে যাওয়ার আওয়াজ শুধু এখানকার অর্থনৈতিক মন্দার আওয়াজের চেয়ে বেশী হচ্ছে! আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমার বাচ্চার কেনাকাটার ব্যাপারে আমি খুব সুশৃঙ্খল হবো। পাগলের মতো কেনাকাটা না করে, আমি বসে কষ্ট করে লিস্ট আর বাজেট ঠিক করেছি। আমি ব্যালেন্স ঠিক করার ক্ষেত্রে খুবই ভাল হচ্ছি; আমার ধারনা অর্থমন্ত্রীকে তার বেতন হারাবার জন্য আমি চিন্তিত করে তুলতে পারি।

সন্তান মানুষ করার ক্ষেত্রে, মাবি'স ওয়ার্ল্ড আলোচনা করেছে সেই সব পিতামহ-পিতামহীরা কি ধরনের অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছে যাদেরকে তাদের নাতি-নাতনির পূর্ণ দায়িত্ব নিতে হচ্ছে:

অনেক বাড়ী আর সমাজের মধ্যে; দাদা-দাদীরা সব সময় তাদের নাতি নাতনীর দেখাশোনা করে থাকে। তারা এতো খুশী হয় যে তারা দীর্ঘ দুরত্ব পার হয়ে আসে তাদের কাছে। কিছু দাদী-নানী বিদেশ পর্যন্ত গেছে বাচ্চার দেখাশোনা করতে। কিন্তু ক্রমবর্ধমান সংখ্যক দাদা দাদীর জন্য সদ্যজাত বাচ্চাদেরকে স্বাগত জানানোর জন্যে অল্প সময়ের এই যাত্রা এখন পরিণত হচ্ছে পূর্ণ সময়ের জন্য দেখাশোনার দায়িত্বে, বাবা- মা যেহেতু কাজে ব্যস্ত থাকে।

নতুন এই ব্লগার টাইফয়েড জর নিরাময়ের জন্য কিছু পরামর্শ দিচ্ছে আর ৫ই অক্টোবর বিশ্ব শিক্ষক দিবস উপলক্ষে তার মৃত বাবাকে স্মরণ করে বলেছে যে শিক্ষকরাই আসল নেতা:

আমার বাবা, টুনিবু জেমস আজেফর, একজন শিক্ষক ছিলেন। একজন যার নেতৃত্বের গুণ এখনো মানুষ স্মরণ করে। তার ছাত্ররা তাকে এখনো মনে রেখেছে একজন স্বার্থহীন, সম্মানিত আর দৃড়চেতা মানুষ হিসাবে, যিনি জ্ঞান বিতরনের ব্যাপারে নিরলস ছিলেন। তার প্রত্যেকটা ছাত্র যার সাথে আমার দেখা হয় একটা না একটা গল্প বলে যে কি করে তিনি তাদের জীবনকে প্রভাবিত করেছেন। তারা তাকে একজন ভালো শিক্ষক হিসাবে জানে যার অধ্যাবসায়, দূরদৃষ্টি, মনোযোগ আর জ্ঞান আহরন আর বিতরনের তৃষ্না তাদেরকে সফল হয়ে নতুন শিখরে পৌঁছাতে সাহায্য করেছে। কথোপকথনে তাকে বর্ণনা করা হতো “অন্যকে বড় কিছু করতে সাহায্যকারী” হিসেবে। এটা নেতৃত্ব।

মাবি আজেফোর ফোমিনিয়েন একজন সাংবাদিক, ক্যামেরুনের সরকারী প্রচার মাধ্যম (সিআরটিভি) তে রেডিও আর টেলিভিশন উপস্থাপক, যে পরিবার, নেতৃত্ব, লিঙ্গ আর মহিলাদের ক্ষমতায়ন সংক্রান্ত বিষয়ে বিশেষ আগ্রহী।

মহিলাদের বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে, রোজমেরি ইকোসো কিছু দিনের বিরতির পর ফিরে এসেছে। সে বহু বিবাহ সমর্থক না আর এই ব্যাপারে সে পরিষ্কার যখন ৮৬ টা বিয়ে করেছে এমন একটা নাইজেরিয়ান লোকের ব্যাপারে সে বিবিসির একটা রিপোর্টের প্রতিক্রিয়া জানায়:

আজকের পৃথিবীতে বহুবিবাহের কোন বৈধ অজুহাত নেই, আর আমরা এটা জানি। আমাদের মহিলাদের অধিকার এইসব ক্ষেত্রে বাঁচানোর ভান ত্যাগ করা উচিত যখন আমরা খুব ভালো করেই জানি যে আমরা আসলে হিসাব রক্ষা করতে চাচ্ছি হয় এটার প্রভাব আমাদের জীবনে নেই তাই বা এটাতে আমাদের সুবিধা হয় তাই।

কিন্তু তার একজন পাঠকের দৃষ্টিভঙ্গী তার থেকে আলাদা ছিল আর সে রোজমেরীকে নিচের কথাগুলো বলেছে:

মহিলারা কি আপনাকে বলেছে যে এটা তাদের সাথে অন্যায়? তাদেরকে জোর করা হয়েছে এমন কোন কথা কি তারা বলেছে? তারা তাদের জীবন ধারা তাদের ইচ্ছা অনুযায়ী বেছে নেয় আর আমাদের কোন অধিকার নেই আমাদের বিশ্বাস তাদের উপর চাপিয়ে দেয়ার যেখানে আমরা তাদের জন্য ‘উপযুক্ত’ বিয়ের কথা বলে ভাবি। এর ফলে মানুষ হিসাবে তাদের মুক্তচিন্তাকে পদদলিত করা হবে।

ডুলসে কেমার যে নিজেকে বর্ণনা করে ‘একজন তরুন ক্যামেরুনিয়ান হিসাবে যে নীজের স্বপ্ন বাস্তবায়নের চেষ্টা করছে’ সে একটি নান্দনিক দিক নিয়ে লিখেছে। সে আর্নেটা গাফোরের স্বাক্ষাৎকার নিয়েছে, যে ৩২ বছরের একজন উঠতি ক্যামেরুনিয়ান চিত্রগ্রাহক এবং যার অনেক উচ্চাকাঙ্খা আছে:

আমার লক্ষ্য আমার নিজের লেবেল করার, নিজের কোম্পানি, নিজের ব্যবসা আর নিজের স্টুডিও একদিন বানানোর। খুব বেশীদিন লাগবে না কারন আমি কাজ করছি এই লক্ষ্যে আর আশা করছি যে আমার স্বপ্ন বাস্তবায়িত হবে।

জার্মানীতে থাকা সংগীত শিল্পী, সঙ্গীত লেখিকা আর মিডিয়া ডিজাইনার- মিনুশার জন্য স্টাইল আর ফ্যাশন আকর্ষণীয় বিষয় লেখার জন্যে। দ্যা পিঙ্ক পোস্ট এ সে চুলের বুণনের বিষয় নিয়ে কথা বলেছে যা আফ্রিকান মহিলাদের সৌন্দর্য বাড়ায়না:

আমার প্রিয় আফ্রিকান বোনেরা! আমি আমাদের চুলের বেশী ভালো ব্যবহারের একটা আর্জী করছি!!! সোজা, কোকড়ানো, আসল, নকল, দয়া করে!!! আসুন আমরা আমদের চুলের সাথে ঠিকমতো ব্যবহার করি!!! নিজের চুলকে নিজের মতো ভালোবাসুন!!!!

সবশেষে মাই আফ্রিকান ফাদার ব্লগ এর বামেন্ডা বেইবস ক্যামেরুন থেকে কয়েকটি রেসিপি দিয়েছে। অনেক বছর আমেরিকায় থাকার পর, এই ব্লগের মাধ্যমে এই মহিলা তার শেঁকড়ের সাথে সংযুক্ত হতে চায় ক্যামেরুনের বিভিন্ন পদের রান্নাবান্না করে:

আমেরিকায় কোহকি-কর্ণ তৈরি করা বেশ বড় ধরনের কসরতের কাজ। মানুষ কোথায় থেকে কলা পাতা পাবে কোহকিকে মুড়ে ভাপে দেয়ার জন্য? আর এর আগে- সব কিছুর আগে- কোথায় থেকে ওই বীজ পাওয়া যাবে যাতে কাজ হবে? এখানে দোকানে যে বীজ পাওয়া যায় তা বেশী নরম, বেশী পানি থাকে তাতে আর অনেক বেশী মিষ্টি। এখানে কোন তাজা কোকোয়াম পাতা কি পাওয়া যায়?

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .