বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

নিকারাগুয়া: একটি নতুন টেলিকম মনোপলি

গত সপ্তাহেই কার্লোস ম্লিম, জীবিত সবচেয়ে (দ্বিতীয়) ধনী ব্যক্তি নিকারাগুয়ার সবচেয়ে বড় কেবল টিভি সরবরাহকারী কোম্পানীকে কিনে নিয়েছে। এসটেসা নামক এই কোম্পানীটি ইতিমধ্যেই বাজারে একচেটিয়া আধিপত্য দখল করে ছিল এবং এখন এটি নিকারাগুয়ায় যে টেলিকম সাম্রাজ্য কার্লোস গড়ে তুলেছে তার অংশ হয়ে গিয়েছে।

এ মুহূর্তে স্লিম এনিটেল কোম্পানীর মালিক যার অন্তর্গত রয়েছে ক্লারো ব্র্যান্ড (মোবাইল ফোন), টার্বোনেট (ওয়্যারলেস ইন্টারনেট সেবা), এমনেট (ব্রডব্যান্ড এবং ডাটা ট্রান্সফার), এনিটেল (ভূতপূর্ব সরকারী কোম্পানী যা দেশের সমস্ত ল্যান্ডলাইন ফোনের সেবা দাতা) এবং এখন এসটেসা।

তবে, যত বড় তারা হয় পতন তত জোরে হয়। গত ১০ দিন ধরে সংবাদ আসছে যে টার্বোনেট এর ইন্টারনেট সেবা যারা ব্যবহার করছেন তারা ব্লগার.কমে হোস্ট করা ব্লগগুলো পড়তে বা আপডেট করতে পারছেন না। কেউ কেউ বলছে এটি কারিগরী ত্রুটির জন্যে, যেমন এল ইকোনস্কপিও ব্লগের ব্লগার রাউল আউজাক সুয়ারেজ এর মতে এটি গুয়াতেমালার একটি আন্তর্জাতিক আইএসপির সাথে সংযোগের সমস্যার জন্যে হচ্ছে। অন্যেরা বিভিন্ন জায়গা থেকে ব্লগে সংযোগ পাবার জন্যে চেষ্টা করে যাচ্ছে, যেমন ই আহোরা দেকু ভামোস আ হাবলার ব্লগের ব্লগার প্রক্সির মাধ্যমে চেষ্টা করে যাচ্ছে। 

একটি দৃশ্যত: টেলিকম মনোপলিতে যেখানে আপনার উপায় থাকে না অন্য সেবা প্রদানকারীর কাছে যাবার, এটি বড় সমস্যা যখন বাজারে একমাত্র সেবা প্রদানকারী যথার্থ সেবা দানে ব্যার্থ হয়। কিছু ব্যবহারকারী স্লিমের কোম্পানির কাছে সরাসরি অভিযোগ করছে তাদের চাহিদা সম্পর্কে।

রামোনের ব্লগ ব্যাখ্যা করছে যে বড় কোম্পানীর ক্ষেত্রে মূল সমস্যা দুর করা বেশ জটিল হয়ে যায়:

..যখন এই কোম্পানী দেশে ইন্টারনেট সেবা দেয়া শুরু করবে তারা এমন চাহিদার সৃষ্টি করবে যে তারা এটি সামলাতে পারবে না। তাদের বর্তমানে স্থানীয় অফিসগুলোতে মজুদ সংক্রান্ত সমস্যা রয়েছে॥ অবশ্য মানুষ ডিএসএল সেবা নেবার চেষ্টা করবে কারন এটি তুলনামূলকভাবে সস্তা কিন্তু এটি মানুষকে চুক্তি হাতে বেশ কিছুদিন রেখে দেয় কানেকশন পাবার আগে। তাদের কাছে কখনই পর্যাপ্ত মডেম থাকে না, এমনকি তিন মাসও অপেক্ষা করতে হতে পারে।

1 টি মন্তব্য

আলোচনায় যোগ দিন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .