বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

উগাণ্ডা: মেণ্ডাসহ আরো ৩ জন গ্রেফতার, পত্রিকা অফিসে তল্লাশি

(সর্বশেষ: এন্ড্রু মেন্ডাকে মুচলেকার মাধ্যমে ছাড়া হয়েছে। তার সমর্থকদের প্রতি তার চিঠি দেখুন টেড ব্লগে)

উগান্ডার বিভিন্ন ব্লগার এবং স্বতন্ত্র্য সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, রাজধানী কামপালার বিরোধীপক্ষের পত্রিকা দ্য ইনডিপেন্ডেন্ট-এর অফিসে তল্লাশী চালিয়ে উগাণ্ডার সিকিউরিটি ফোর্স তিনজন সাংবাদিক এবং ১ জন আলোকচিত্রীকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে একজন হলেন এণ্ড্রু মেণ্ডা , যিনি ইতিপূর্বে ২০০৫ সালে সুদানের উপ-রাষ্ট্রপতি জন গেরেং এর মৃত্যু নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে জনগণকে সরকারের বিরুদ্ধে খেপিয়ে তোলার জন্য অভিযুক্ত হয়েছিলেন ।

রয়টার্স এবং উগাণ্ডার দৈনিক মনিটর গতকাল এই সংবাদ ছেপেছে আর ইন্ডিপেন্ডেন্ট পত্রিকা অফিসে আসলে কি ঘটেছে তার বিশদ বিবরণ ছেপেছে:

প্রথম তল্লাশীর একমাসের মধ্যে দুটি আলাদা অভিযানে, পুলিশ এবং মিলেটারী গোয়েন্দার (সিএমআই) প্রধান, সন্ত্রাস বিরোধী যৌথ টাস্কফোর্স (জেএটিটি) ও ব্ল্যাক মামবা স্কোয়াড ইন্ডিপেন্ডেন্টের অফিসে আবার তল্লাশী চালালো। মেণ্ডা'র বাড়ি থেকে পুলিশ তার ল্যাপটপ, ফ্ল্যাশডিস্ক, ব্যক্তিগত এবং দাপ্তরিক তথ্যপূর্ণ ৪৩ টি সিডি এবং উগাণ্ডার ক্ষমতাশালীদের দুর্নীতি এবং রাজনীতির উপর একটি বইয়ের পাণ্ডুলিপি (যেটি তিনি এবং প্রফেসর রজার টেংরি যৌথ ভাবে লিখেছেন) জব্দ করে। এরপর মেণ্ডাকে ইন্ডিপেণ্ডেন্ট এর অফিসে আনা হয়। মুহূর্তের মধ্যে সাধারণ পোষাকে কিছু মানুষ অফিসে ঢুকে পড়ে এবং মুসেদের (গোয়েন্দা পুলিশ) মতন অবস্থান নেয় এবং নিউজরুমে কর্মরত কয়েকজন কর্মচারীকে একটি ফাঁকা জায়গায় নিয়ে জড়ো করে এবং বলেন তিনি কিছু খুঁজছেন। উপদেষ্টা সম্পাদক চার্লস সি বিচাচি তখন জানতে চান, তারা আসলে কি খুঁজছে এবং কর্তৃপক্ষের অনুমতি আছে কিনা? লম্বা, ফর্সা এবং কোমরে একটি বন্দুক উঁকি দিচ্ছিল এমন একজন বলেন “পরিচয়পত্রই যথেষ্ট, তদন্তের জন্য আর কোন গ্রেফতারী পরোয়ানা দেখানোর দরকার নেই”। মেণ্ডা আসার পর তাদের তল্লাশীর কারণ বোঝা যায়, তদন্ত দলটি কামপালায় বিভিন্ন নির্যাতনের স্থান এবং সারাদেশে সিএমআই কর্তৃক নির্যাতিতদের সাক্ষাৎকারের কপি এবং সরকার বিরোধী প্রকাশনার জন্য তৈরী করা তথ্যাদি খুঁজতে থাকে।

জুলিয়ানা আফ্রোমিউজিং এ লিখেছেন:

আফ্রিকার শক্তি মান বুদ্ধিজীবি এবং সাংবাদিক এণ্ড্রু মেণ্ডাকে উগাণ্ডার সরকার গ্রেফতার করেছে । আরও বিস্তারিত এখানে

এটা সম্পূর্ণ অন্যায় এবং আমি এখনও নিশ্চিত নই তিনি কোথায় আছেন । এই মুহূর্তে এই ব্লগে এটাকে গুরুত্ব দিচ্ছি আপনিও আপনার ব্লগে এটি গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশ করুন এবং আশা করি এর মাধ্যমে কিছু উদ্যোগ নেয়া সম্ভব হবে এবং অনলাইনে কিছু প্রচারণা সংগঠিত হবে । টেড ব্লগে সর্বশেষ সংবাদের জন্য চোখ রাখুন ।

গেলিনা তার উগাণ্ডা'জ স্কারলেট লায়ন ব্লগে আরও বলেন:

৩ মে বিশ্ব মুক্ত সাংবাদিকতা দিবস, এবং এই বছর রিপোর্টাস উইদাউট বডার্স এর বার্ষিক প্রতিবেদনে উগাণ্ডাকে যুক্ত করা হয় নি । এমন সিদ্ধান্ত নেয়ার পেছনে ওয়েব লিস্ট এ কোন ব্যাখ্যাও দেয়া হয় নি।

মেণ্ডার ভক্তরা ফেসবুকে তার মুক্তির দাবীতে একটি গ্রুপ খুলেছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .