বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

আর্জেন্টিনা: উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা অনলাইন ভিডিওর মাধ্যমে তাদের সমস্যা জানাচ্ছে

ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে আর্জেন্টিনার উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা প্রচার মাধ্যমের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পেরেছে তাদের সমস্যার কথা যে তাদের ক্লাস করার জন্যে একটি বিল্ডিং দরকার।

বর্তমানে সেবাস্তিয়ান এলকানো, আর্জেন্টিনার কর্ডোবার উত্তরের একটি গ্রামে উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তাদের ক্লাস করছে। কিন্তু ওই প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ডবল শিফ্ট নিজস্ব ক্লাস চলে। তাই এসব ছাত্র-ছাত্রীদের প্রায় রাতেই ক্লাস করতে হয়।

গত মার্চের শেষের দিকে এইসব ছাত্রছাত্রীদের বাবা-মারা ওই উচ্চ বিদ্যালয়ের বিল্ডিং (ভাঙ্গা অবস্থায়) অবস্থান নিয়েছে এবং প্রতিজ্ঞা করেছে যে যতক্ষণ না পর্যন্ত এটি তৈরি করার মেশিন এসে পৌঁছায় এবং এটি শুরু করার ঘোষনা দেয়া হয়। এর আগে বলা হয়েছিল যে মার্চের মধ্যে স্কুলটি তৈরি হয়ে যাবে। এই ছাত্রছাত্রীরা সমাজ বিজ্ঞান এবং যোগাযোগের ক্লাস করেছে এবং একটি স্থানীয় টিভি চ্যানেলের জন্যে খবরের ভিডিও ও তৈরি করেছে। এবং তাদের ইউটিউবের চ্যানেল এর মাধ্যমেই এই খবর প্রচার মাধ্যমের দ্বারা সারা আর্জেন্টিনায় ছড়িয়েছে।

নীচের এই ভিডিওতে (স্প্যানিশ ভাষায়) ছাত্র-ছাত্রীদের পিতা-মাতারা বর্ণনা করছে কিভাবে তারা প্রায় ২০ বছর ধরে অপেক্ষা করছে এই আইপিইএম ১১২ স্কুল বিল্ডিংটির জন্যে। তারা বর্ণনা করছে কার্পানী কোস্টা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রিন্সিপালের কথা যিনি তার ওখানে উচ্চ বিদ্যালয়ের ক্লাসগুলো করতে দিচ্ছেন। এবং তারা বর্ণনা করছে কিভাবে এই পিতা-মাতারা ঐ স্কুলে অবস্থান নিয়েছে যতদিন না পর্যন্ত প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী স্কুল বিল্ডিং তৈরি হয়।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .