বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

গ্লোবাল সিটিজেন মিডিয়ার উপর একটি পরিচিতিমূলক গাইড

রাইজিং ভয়েসেস গর্বের সাথে জানাচ্ছে যে তাদের আউটরিচ গাইডের সিরিজের মধ্যে প্রথম গাইডটি প্রকাশিত হয়েছে যা সিটিজেন মিডিয়া সম্বন্ধে প্রাথমিক ধারনা দেবে প্রযুক্তির সাথে অপরিচিত ব্যক্তিদের। ‘সিটিজেন মিডিয়া পরিচিতি’ নামে প্রথম গাইডটিতে কেস স্টাডি আর অন্যান্য প্রাসঙ্গিক বক্তব্য আছে যেখানে বলা আছে কিভাবে পৃথিবীর বিভিন্ন অন্চলের নাগরিকরা সীমানা, সংস্কৃতি আর ভাষার গন্ডি পেরিয়ে ক্রমবর্ধমান হারে ব্লগ, পডকাস্ট, অনলাইন ভিডিও আর ডিজিটাল ছবি দিয়ে বাধাহীনভাবে কথোপকথন চালাতে পারে। এই গাইডের সূচনা থেকে:

আমাদের যোগাযোগ ও কথোপকথনে একটি পরিবর্তন সাধিত হচ্ছে:

দশ বছর আগে আমরা আমাদের চারপাশের পৃথিবী সম্বন্ধে যা কিছু জানতাম বা শিখতাম তা সংবাদপত্র, টেলিভিশন এবং রেডিওর মাধ্যমে। পেশাদার সাংবাদিকেরা বিভিন্ন দুরবর্তী স্থানে যেতেন পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ এবং লোকজনের সাথে কথা বলার জন্যে এবং সে সম্পর্কে রিপোর্ট, ছবি আর ভিডিও নিয়ে আসতেন। মাঝে মাঝে আমরা রাতের খাবারের সময় পরিবারের লোকজন এবং বন্ধু বান্ধবের সাথে এই গল্পগুলি নিয়ে আলোচনা করতাম বা এখনও করি। কিন্তু দশ বছর আগে আমরা খুবই কম এই লেখকদের সাথে প্রত্যক্ষভাবে যোগাযোগ করতাম বা কখনই হয়ত করতাম না। সমাজের অগ্রগণ্য বা প্রভাবশালী ব্যক্তিরা বিভিন্ন বিষয়ের উপর তাদের নিজস্ব মতামত, প্রবন্ধ লিখতেন। অথচ আমাদের মধ্যে অধিকাংশই শুধুমাত্র মুষ্টিমেয় বন্ধু বান্ধবের সাথে নিজস্ব মতামত বা চিন্তাধারা আদান প্রদান করতে পারতাম।

কিন্তু গত কয়েক বছরে সবকিছুরই পরিবর্তন হয়েছে। ওয়েবলগের মত নতুন প্রযুক্তিকে ধন্যবাদ, কারন এগুলোর মাধ্যমে ইন্টারনেটে অভিব্যক্তি প্রকাশ সহজতর হয়েছে। তুরস্ক, কেনিয়া অথবা বলিভিয়া থেকে আমার-আপনার মতো সাধারন মানুষ তাদের গল্প ও মতামত আদান প্রদান করতে পারছে পৃথিবীর বাকী লোকদের সাথে।

যদিও যোগাযোগের এই নব প্রযুক্তি সকলের কাছেই সহজলভ্য তবুও দেখা যাচ্ছে যে অধিকাংশ শহর কেন্দ্রিক এবং বিশেষ করে ধনী পাড়ার লোকজন এতে অংশগ্রহণ করছে। এই সহায়িকার উদ্দেশ্য হচ্ছে এটিই দেখানো যে, ইন্টারনেট সংযোগের মাধ্যমে যে কোন কমিউনিটির যে কোন ব্যক্তিই ক্রমবর্ধমান বৈশ্বিক কথোপকথনে যোগ দিতে পারে। বিশ্ব সম্পর্কে আমাদের ধারনা ও জ্ঞান এখন আর সংবাদপত্র ও টেলিভিশন দ্বারাই নিয়ন্ত্রিত নয়, বরং আমাদের একে অপরের মতামতও ভুমিকা রাখে।

সিটিজেন মিডিয়া পরিচিতির প্রথম সংস্করন ইংরেজি, স্পানিশ আর বাংলায় পাওয়া যাচ্ছে । পরবর্তী সংস্করনে সোয়াহিলি, মালাগাসি আর আয়মারা ভাষায় অনুবাদ থাকবে।

যদিও বেশ কয়েকটা খুব ভালো পরিচিতি পাওয়া যায় নাগরিক মিডিয়ার মূল বিষয়ের উপর, তাদের বেশীরভাগ কিন্তু জোর দিয়েছে উত্তর আমেরিকা আর পশ্চিম ইউরোপে নাগরিক মিডিয়ার ক্রমবর্ধমান বিকাশের উপর। এই গাইড উত্তর আমেরিকা আর পশ্চিম ইউরোপের পাঠকদের জানাতে চায় যে আদতে সব থেকে চিত্তাকর্ষক আর উদ্ভাবক কাজ গুলো নাগরিক মিডিয়াতে হচ্ছে অ-পশ্চিমী অন্চলে। এবং এটি একটি উল্লেখ করার মত নথি হিসাবে কাজ করতে পারে স্থানীয় উদ্যোগগুলোর জন্যে যারা চায় তাদের নাগরিক মিডিয়া প্রকল্পকে একটা আন্তর্জাতিক দৃষ্টিকোন দিতে বিশেষ করে যখন এনিয়ে তাদের স্থানীয় সমাজের নেতা, রাজনিতীবিদ আর প্রতিষ্ঠানের সাথে কথা বলার দরকার হয়।

২০০৮ ব্যাপী রাইজিং ভয়েস প্রচার করবে এই সিরিজের অন্যান্য গাইডগুলো যাতে বিস্তারিত ভাবে থাকবে আরএসএস ফিড, ব্লগ, ডিজিটাল ছবি, পডকাস্টিং আর অনলাইন ভিডিও এর ব্যবহার আর প্রয়োগ নিযে বিস্তারিত লেখা ।

‘সিটিজেন মিডিয়ার পরিচিতি’ ডাউনলোড করুন
Download An Introduction to Citizen Media in English
Descarga Una Introducción a Medios Ciudadanos en Español

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .