বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কিরগিজস্তানঃ রাষ্ট্রপতি ও সংসদ নিয়ে বিতর্ক

এডিল বেইসালোভের ব্যক্তিগত ব্লগটি কিরগিজস্তানের সর্বাধিক পঠিত ব্লগ হিসেবে পরিচিত যা ২০০৭ এর ৪ঠা ডিসেম্বর থেকে বন্ধ আছে। ধারণা করা হয় কিরগিজ প্রজাতন্ত্রের কেন্দ্রীয় নির্বাচন পরিষদের কোন সদস্য নির্বাচনের আগে তার ব্লগে অবৈধভাবে ভোটিং ব্যালট প্রকাশ করার দায়ে অভিযুক্ত করে এবং মূলত: সে কারণেই ব্লগটি বন্ধ করে দেয়া হয়। বেইসালোভ সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টির একজন সদস্য এবং উক্ত নির্বাচনে একজন ডেপুটি পদপ্রার্থী ছিলেন। স্থানীয় মিডিয়ার ভাষ্য মতে ব্যালট কেলেঙ্কারীর পরে তিনি দেশ ছেড়েছেন এবং গুঞ্জন শোনা যায় যে তিনি এখন কাজাখস্তানে বসবাস করছেন।

এছাড়াও এলিনা সোসিলোর ব্যক্তিগত ব্লগ ইদানিং ক্রমশ: জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এই ব্লগটি ঘিরে রাজনীতি, অর্থনীতি ও সমাজের বিভিন্ন বিষয়ের উপরে চমৎকার আলোচনা চলছে এবং উৎসাহিত হয়ে উঠেছে কিরগিজস্তানের ব্লগাররা। তার ব্লগের সাম্প্রতিক আলোচনা ছিল একজন ভদ্রমহিলাকে নিয়ে যিনি কয়েক বৎসর পূর্বে ভবিষ্যৎবাণী করেছিলেন যে কারমাবেক বাকিয়েভ হবে পরবর্তী রাষ্ট্রপতি এবং এর বাকিয়েভের পরে রাষ্ট্রপতি হবেন একজন তরুন যিনি এখন দেশের বাইরে আছেন। এলিনা  তার ব্লগে লিখেছেন:

এডিল, ফিরে আসো, সম্ভবত তুমি হবে আমাদের পরবর্তী রাষ্ট্রপতি!

নুরাইকা  লিখেছেন,

“এটি আসলেই খুব ভাল হতো যদি তিনি রাষ্ট্রপতি হতেন। কিন্তু সত্যি কথা বলতে কি আমি মনে করি না তিনি কখনই হতে পারবেন”

মিঃ কার্লসন  মন্তব্য করেছেন এভাবে,

“যদিও এডিল রাষ্ট্রনায়ক পদের তুলনায় অনেক তরুণ, কিন্ত আমাদের বর্তমান প্রেসিডেন্টের তুলনায় বয়সের পার্থক্য থাকা সত্ত্বেও সে মোটেই অদক্ষ ও অনুপযুক্ত নয়। কিন্তু সর্বপ্রথম তাকে দেশে ফিরতে হবে। এটাই হচ্ছে আমাদের আলোচনার সব চেয়ে শোকাবহ অধ্যায়।”

সংসদের স্পিকার আদাহান মাদুমারোভ ঘোষণা করেছেন, সংসদের নবনির্বাচিত সদস্যরা এখন থেকে দাপ্তরিক গাড়ি পাবেন। এছাড়াও যে সমস্ত সদস্য যাদের রাজধানী শহরে থাকার মত বাসস্থান নেই তাদের জন্য ফ্লাট বরাদ্দ দেয়া হবে। এতে অবাক হবার কিছু নেই যে এমন ঘোষণা কিরগিজ ব্লগারদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভ ও অসন্তোষের জন্ম দেবে। উদাহরণ স্বরূপ, মাকারফ বলেছেন:

“সমস্ত সদস্যদের আগে থেকেই ফ্লাট এবং বাড়ী রয়েছে। যেমন, শাদিয়েভের তিনটি বাড়ি আছে, জুনোজোভ এর অনুরূপ”।

ম্যাগনেটিক ভাবছেন,

“বাড়ী, ফ্লাট, গাড়ী, পেট্রল, সেলফোন, বিজনেস ট্রিপ – তাদের সন্তানেরা দামী প্রাইভেট স্কুল, বিশ্ববিদ্যালয়ে যায়, বিদেশে পড়তে পাঠানো হয়। আমাদের এমন সদস্যদের কেন দরকার? আমাকে বলুন, তারা তাদের দেশের মানুষ ও দেশের জন্য কি করেছে?”

কভবই জিজ্ঞেস করেছেন,

“এটা কিভাবে সম্ভব নির্বাচনের আগে যে সমস্ত প্রার্থীরা বিশাল অঙ্কের অর্থ ব্যয় করেছেন তাদের কোন ফ্ল্যাট নেই? পুরো দমে কুপমন্ডুক।”

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .