বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

সৌদি ব্লগার ফুয়াদ আল ফারহান জেদ্দায় গ্রেফতার হয়েছেন

সৌদি আরবের মানবাধিকার রেকর্ডে আরেকটি খেতাব যুক্ত হলো সে দেশের প্রথম ব্লগারকে গ্রেফতারের মধ্য দিয়ে। জেদ্দাতে গ্রেফতার হয়েছেনফুয়াদ আল ফারহান, যাকে অনেকেই সৌদি আরবের ব্লগারদের ডীন বলেন কারন তিনি হচ্ছেন সে দেশের প্রথম ব্লগারদের একজন যারা নিজেদের নামে ব্লগিং করছেন। তার গ্রেফতারের কারন সম্পর্কে এখন পর্যন্ত কিছু জানা যায়নি।

দ্যা আরব ব্লগার্স অবজারভেটরী এই গ্রেফতার সম্পর্কে জানিয়েছেন এভাবে:

ফুয়াদ আল ফারহান ডিসেম্বর ১১, ২০০৭ মঙ্গলবার সৌদি আরবের পশ্চিমে অবস্থিত জেদ্দাহ শহরে তার অফিস থেকে জোর পূর্বক গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে কোন কারন দর্শানোপূর্বকই আটক করা হয়েছে। ফুয়াদ হচ্ছেন সৌদি আরবের প্রথম ব্লগারদের একজন যারা নিজেদের নামে ব্লগিং করছেন এবং তার ব্লগ সামাজিক সমস্যা নিয়ে কথা বলে এবং খোলাখুলিভাবে জাতীয় ইস্যুগুলো নিয়ে আলোচনা করে। তার ব্লগের শিরোনামে এটি প্রতিফলিত রয়েছে: রাঘদাদ এবং খিতাবের জন্যে (তার কন্যাদ্বয়) খুঁজে ফিরছি স্বাধীনতা, মর্যাদা, ন্যায় বিচার, সমতা, শুরা, এবং অন্য ইসলামিক মুল্যবোধগুলো যা ক্রমাগত হারিয়ে যাচ্ছে। কর্তুপক্ষরা ফুয়াদের ১০ জন শিক্ষাবিদের প্রতি সমর্থনকে বিরুপ চোখে দেখছে। এই দশ শিক্ষাবিদকে এ বছর গ্রেফতার করা হয়েছে সন্ত্রাসে অর্থ যোগান দেয়ার অভিযোগে, যা এখনও প্রমানের অপেক্ষায় রয়েছে। এখানে উল্লেখযোগ্য যে ফুয়াদ আল ফারহানকে এবছরের প্রথমদিকে (ফেব্রুয়ারী মাসে) কর্তৃপক্ষরা নাজেহাল করেছিল। এর ফলে তার ব্লগ বন্ধ হয়ে গিয়েছিল এবং তিনি জুন মাসে আবার ব্লগিং শুরু করেন।

ইতিমধ্যে, সৌদি ব্লগাররা দ্রুত তাদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। মাশিসা৭ জানাচ্ছেন:

সৌদি আরবের সংস্কার এবং আরও স্বাধীনতা দেয়ার কার্যক্রমের ধারার বিপক্ষে একটি উদ্বেগজনক ঘটনা ঘটেছে। আরব ব্লগার্স অবজারভেটরী জানাচ্ছে যে সৌদি কর্তৃপক্ষ ব্লগার ফুয়াদ আল ফারহানকে গ্রেফতার করেছে। তিনি একজন সৌদি ব্লগার যিনি তার শান্তিপূর্ণ সংস্কারের চিন্তাধারার জন্যে জনপ্রিয়, রাষ্ট্রের মুল্যবোধ রক্ষার জন্যে চির সচেষ্ট এবং সন্ত্রাস ব্যবহারে যে কোন ওজরের বিরুদ্ধে তিনি বলিষ্ঠ কন্ঠে প্রতিবাদ করেন। ফুয়াদ আল ফারহান হচ্ছেন সৌদি ব্লগারদের ডীন এবং সবাই এই খেতাব তাকে দিতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করেন। তিনি ইতিপূর্বে কর্তৃপক্ষ দ্বারা নাজেহাল হয়েছেন যা তাকে ব্লগিং করা থেকে বেশ কিছুদিন বিরত রাখে। তিনি আবার ফিরেছেন ২৫টি কারন দর্শিয়ে কেন তিনি আবার ব্লগিং করতে প্রবৃত্ত হয়েছেন। এখন পর্যন্ত আমরা জানিনা কেন এবং কি অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আমরা এই ঘটনার সর্বশেষ আপনার জানাতে সচেষ্ট হব এবং এখনকার মত চলুন ফুয়াদ আল ফারহানকে আমাদের সমর্থন জানাই ব্লগিংয়ের স্বাধীনতা সমুজ্জ্বল রাখার জন্যে এবং বাক স্বাধীনতার অধিকার সমুন্নত রাখার জন্যে।

আরেকজন ব্লগার আল কায়েদ (দি লিডার) আল ফারহান সম্পর্কে তার অনুভুতি ব্যক্ত করেছেন। তিনি বলছেন:

আমার কলম জানেনা কি দিয়ে শুরু করতে হবে..
যোগ্য ব্লগার ফুয়াদ আল ফারহানের গ্রেফতারের খবর দিয়ে কি শুরু করা উচিৎ?
না কি আমাদের কাছ থেকে অজ্ঞাত স্বাধীনতা কেড়ে নেয়ার জন্যে ক্রন্দন দিয়ে??
ফুয়াদ আল ফারহান..
সৌদি ব্লগারদের ডীন..
১২ দিন আগে গ্রেফতার হয়েছেন তার অফিস থেকে
ব্লগার অভজারভেটরী জানিয়েছে..
আমরা ফুয়াদের কাছ থেকে কখনও ভাল ছাড়া খারাপ কিছু দেখিনি.
আমরা জানি যে তিনি দেশকে ভালবাসেন, একে সমুন্নত রাখার চেষ্টা করেন
তার কলম ও জিহ্বা দিয়ে ভুল কার্যকলাপ করা মানুষদের কাছ থেকে
যারা তাকে আমাদের কাছ থেকে কেড়ে নিতে চায়…
সৎ নাগরিকদের কি শাস্তি ভোগ করতে হবে দুর্নীতিযুক্ত মানুষ
এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার জন্যে?
কে তোমাকে অপহরন করেছে ফুয়াদ?
বাক স্বাধীনতা সমুন্নত রাখার কন্ঠগুলো বন্ধ করাতে কাদের লাভ?

আল ফারহান এখানে আরবীতে ব্লগিং করেন। গ্লোবাল ভয়েসেস অনলাইন পূর্বে তার সাথে একটি স্বাক্ষাৎকার নিয়েছিল যা পাওয়া যাবে এখানে

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .