বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

রাশিয়াঃ মস্কোতে ‘নাশি’ সদস্যেরা

রাশিয়ার নির্বাচন পরবর্তী দ্বিতীয় সপ্তাহ শুরু হয়েছে ভ্লাদিমির পুতিন আর প্রথম উপপ্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভের মধ্যে সৌজন্য বিনিময় দিয়ে। সোমবার পুতিন বলেছেন যে তিনি মেদভেদেভকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হতে সমর্থন করছেন, আর মঙ্গলবার মেদভেদেভ বলেছেন যে তিনি পুতিনকে প্রধানমন্ত্রী হতে সমর্থন করেছেন।

নির্বাচন পরবর্তী প্রথম সপ্তাহে অবশ্য দেখা গিয়েছে শহরের বাইরে থেকে পুতিনের সমর্থক যুব আন্দোলন ‘নাশি‘ (আমাদের) সদস্যদের মস্কোতে বেশী পরিমানে উপস্থিতি আর পুতিনের সমর্থনে শিশুদের নতুন আন্দোলন ‘মিশকি‘ (ভালুক ছানার দল) এর কয়েকজন সদস্যের জনসম্মুখে আসা।

স্ক্র্যাপ্স অফ মস্কো ব্লগের লিন্ডন মিশকি নিয়ে বিস্তারিত লিখেছেন আর তারা রাশিয়ার মিডিয়া আর ব্লগে যে বিষ্ময় তৈরি করেছে তা নিয়ে।

লাইভ জার্নাল ব্যবহারকারী ওডালিজকা গত সপ্তাহে মস্কোতে ‘নাশি’ দলের কয়েকটি বাচ্চাদের সাথে তার দেখা হওয়ার ঘটনা বলেছেন:

সোমবার থেকে মস্কোতে নাশিরা লাল-সাদা রেন কোট পরে আর প্রেসিডেন্টের ছবি যার উপর লেখা ‘আমাদের বিজয়’ নিয়ে সারা শহর ছেয়ে ফেলেছে। আমি ভেবেছিলাম তারা রাস্তা আর স্কোয়ারে মিটিং আর সমাবেশে অংশগ্রহন করবে, কিন্তু গত ৪ দিন ধরে এদের ছোট ছোট দল পতাকা নিয়ে আমাদের অফিসের বাইরে থাকছে, ক্রিস্টি প্রুডির কাছের একটা ছোট রাস্তায়।

সোমবারের বৃষ্টি তাদের জন্য কষ্টকর ছিল- তারা আমাদের গেটের কাছে ঢুকে ছিল যেখানে আমরা সিগারেট খেয়ে থাকি আর যেখানে ঘন্টা হিসাবে বিছানা ভাড়া দেয় এমন একটি হোটেল আছে। এই তরুন ছেলে মেয়েরা সবার সহানুভুতি জাগিয়েছে আর সবাই তাদেরকে গোসল করাতে, খাবার দিতে আর গরম রাখতে তৎপর হয়েছে। তার পর দেখা গেল যে এডুয়ার্ড লিমানোভ এর অফিস কাছেই আর তাদেরকে স্থায়ীভাবে এই অফিস পাহারা দেয়ার জন্য পাঠানো হয়েছে যাতে লিমানোভের লোকেরা একসাথে এসে আমাদের কষ্টার্জিত জয় ছিনিয়ে না নিয়ে যায়।

[তিনটি ছবি]

দেখতে পাচ্ছেন যে তারা যানবাহন আটকিয়ে রেখেছে রাস্তার দুইধারে দাঁড়িয়ে আর তাদের পতাকা দিয়ে সেখান থেকে যাওয়া প্রত্যেক গাড়ির উপর তোরনের মত করে ধরছে। মনে হচ্ছে তারা এই শহরের মালিক, বিজয়ী আর দখলদারকারী। আমার সহকর্মী আলো সবুজ থাকায় গাড়ি চালাতে গিয়েছিল কিন্তু তখন রেইনকোট পরা একদল তরুন রাস্তা পার হচ্ছিল। সে হর্ন বাজালে তারা তার গাড়ি ঘিরে ধরে পতাকা নাড়িয়েছে। সে তখন জানালা খুলে বলেছে, ”জানালা ঠিকমত মুছে দাও কারন এটা বেশ ময়লা।” তারা হেসে তখন চলে গেছে।

তাদের দৃষ্টি শূন্য। আমাদের বাড়ির পিছন পরিষ্কার করতে আসা তাজিকদের তাদের তুলনায় অভিজাত দেখাচ্ছে। তাদের ব্যাজে লেখা আছে, ”ইয়াকাতেরিনা সিদোরোভা। ভ্লাদিমির। মতবাদ।” কয়েকজন এদের মধ্যে নেতা – তারা গরম লাল জ্যাকেট পরে আছে যাতে মুদ্রিত আছে তার (আপনারা জানেন কার) ছবি। ঠিক বিকাল ৫টায় তারা চলে যায়। বলা বাহুল্য যে আশে পাশের গাড়ির জানালায় নাশিদের লিফলেট ভরে গেছে যা এখন চারিদিকে বিখ্যাত আর যাতে বিষ্ময়কর ছবি আর কথা আছে।

আপনারা বুঝতে পারছেন, ঠিক? এদেরকে ক) মস্কোতে আনা হয়েছে খ) থাকার জায়গা দেয়া হয়েছে গ) ইউনিফর্ম পরানো হয়েছে ঘ) লিফলেট, পতাকা দেয়া হয়েছে ঙ) খাওয়া দেয়া হচ্ছে চ) আর অবশ্যই টাকা দেয়া হচ্ছে। এর বদলে উচিত ছিল তাদেরকে স্কুলে ভর্তি করে শিক্ষিত করা – এই ভাবে আমাদের দেশের ভবিষতের জন্য বিনিয়োগ করা।

দেখতে কষ্ট লাগে যে কি ধরনের লোকের উপর বর্তমান সরকার নির্ভর করছে।

- ভেরোনিকা খখলোভা

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .