বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

এই সপ্তাহের পরিবেশ ব্লগগুলো

কেপটাউনে সৌরশক্তি চালিত ট্র্যাফিক বাতি, ঘানার আক্রাতে আধুনিক এবং সবুজ স্পর্শযুক্ত স্থাপত্য, আফ্রিকাতে কিছু কোম্পানীর পরিবেশ সংক্রান্ত বিজ্ঞাপন সম্বন্ধে প্রশ্ন, এবং একটি সুন্দর শিশু গরিলা; এই সব নিয়েই গ্লোবাল ভয়েসেস এর পরিবেশ সংক্রান্ত ব্লগগুলির আজকের পরিক্রমা সাজিয়েছি।

আমরা শুরু করি কেপটাউনে সৌরশক্তি চালিত ট্র্যাফিক বাতির খবর দিয়ে। কার্বন কপি ব্লগ একে এক মহান শুরু বলেছেন পুনর্ব্যবহৃত জ্বালানী শক্তিকে ম্যাপে সন্নিবেশিত করার। একই প্রবন্ধে এই ব্লগার আলোচনা করেছেন পরিবেশ উন্নয়ন সংক্রান্ত উদ্যোগগুলোকে বড় আকারে নেয়ার ব্যপারে, এবং কিছু সুনির্দিষ্ট কৌশলের প্রয়োজনীয়তার যা দুষনমুক্ত পরিবেশ সহায়ক প্রযুক্তি ব্যাপক হারে উৎপাদনে উৎ‍সাহিত করার জন্য দরকারী। গ্রীনকারস ব্লগের কার্লও সৌরশক্তি চালিত রাস্তা আলো সম্পর্কে আলোচনা কলেছেন। তিনি এই প্রকল্পকে উৎসাহিত করেছেন এবং এর পাইলট প্রকল্পের ভুমিকা বর্ণনা করেছেন:

দৃশ্যত: একটি বড় ট্র্যাফিক বাতি একটি ৩ বেডরুম বাসার সমান বিদ্যুৎ মাসে খরচ করে। সেই হিসেবে যদি কেপটাউন শহর তার গ্রীড থেকে সমস্ত বড় ট্র্যাফিক বাতি সরিয়ে দেয় তা হবে ১২০০ বাড়ী ওই বৈদ্যুতিক গ্রীড থেকে সরিয়ে দেয়ার সমতুল্য।

কার্ল এই সৌরশক্তি প্রযুক্তির ট্র্যাফিক বাতি বসানোর প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সুবিধাগুলিও বর্ণনা করেছেন:

পরিবেশ সহায়ক সহনীয় শক্তি উৎসগুলো ব্যবহার করার ফলে যে সরাসরি সুবিধা গুলো ছাড়াও এর একটি গুরুত্বপূর্ণ পরোক্ষ সুবিধা রয়েছে- যদি সৌরশক্তি প্রযুক্তির ট্র্যাফিক বাতি তাদের সাধারন বৈদ্যুতিক গ্রীডের প্রতিরুপের চেয়ে আরও বেশি নির্ভরযোগ্য হয়, তবে কম সংখক ট্র্যাফিক বাতি নষ্ট হবে , ফলে যানজট পাকানোর সম্ভাবনাও কমে যাবে এবং তা কম জ্বালানী পোড়ানোয় সাহায্য করবে।

তিনি সৌর প্যানেলের চৌর্যবৃত্তি অথবা ক্ষতি সম্পর্কেও চিন্তা করেছেন কিন্তু আশা করেছেন যে এই প্রকল্পে এমন হবে না।

এখন আমরা আসি ঘানাতে : আফ্রিকান স্থাপত্য এবং নকশা ব্লগ পোস্ট করছেন রাজধানী আক্রায় আধুনিক সবুজ স্থাপত্য সম্বন্ধে। তিনি এপার্টমেন্টের বর্তমান উন্নতিগুলো নিয়ে উদাহরন দিয়েছেন:

এইসব এপার্টমেন্ট ঘানায় সহজলভ্য অন্যান্য পরিবেশ সহায়ক উপকরণ ব্যবহার করে : পূলসাইডের কাবানা এবং ব্যালকনি র রেলিংয়ে ব্যবহারের জন্য বাঁশ; দেয়ালের জন্য অ্যাডোব প্লাস্টার; তেলের ড্রাম থেকে সিট নিয়ে বাড়ীর ছাদ, দেয়ালের প্যানেলের জন্যে সযন্তে উৎপাদন করা দেশীয় কাঠ।

আপনারা কি কখনও চিন্তা করেছেন যে যেসব কোম্পানি সর্বদা পরিবেশ সহায়ক ঘোষনা দিয়ে বিজ্ঞাপন দিচ্ছে তা সত্যি কিনা? আন্দ্রেয়াস তার ব্লগে লিখছেন “পরিবেশ সহায়ক কাপড় ধোয়া ও স্পিনসাইকেল নিয়ে” যাতে তিনি সবাইকে বলছেন যা বলা হয় তাই বিশ্বাস না করে চোখ কান খোলা রাখতে।

এটি অফিসিয়াল: সবুজ হচ্ছে নতুন, মানে সবুজ। বিশ্বব্যাপী কোম্পানিগুলো বুঝে গেছে যে পরিবেশ সহায়ক ব্যবসা তাদের লাভের হার মার্জিন উন্নতি করতে পারে এবং প্রচুর খরচ করা বিজ্ঞাপন অভিযানগুলো এবং মাল্টি-মিলিয়ন ডলার রিব্রান্ডিং অনুশীলনের মধ্য দিয়ে তাদের সবুজ সচেতনতা জনগনের কাছে ছড়াচ্ছে। এদের কারো ক্ষেত্র হয়তো এই বিপণন প্রচেষ্টা ভবিষ্যতে পরিবেশ সহায়ক ব্যবসা করার একটি অঙ্গীকার কিন্তু অন্যদের ক্ষেত্রে আমাদের সংশয়বাদী হওয়া ছাড়া গতি নেই।

এই পরিক্রমার উপসংহারে আমরা কঙ্গোতে যাচ্ছি, যেখানে যুদ্ধ জনগণকে এখনও ভোগাচ্ছে এবং গরিলাদের রক্ষা করার প্রচেষ্টা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। গরিলা প্রটেকশন ব্লগ এ সম্বন্ধে নিয়মিত আপডেট দিচ্ছে যেমন সম্প্রতি একজন রেন্জার মারা গিয়েছেন

আপনাদের এই দু:সংবাদ দিয়ে ছেড়ে যাবনা। একই ব্লগ থেকে কাবিলা নামের সুন্দর শিশু গরিলার একটি ছবি দেখুন।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .