বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

মালয়শিয়া : ব্লগাররা ধর্মীয় নিয়ন্ত্রণের প্রতিবাদ করলেন

মালয়েশিয়ার একজন তরুন গায়িকা নূর ইদায়ু আবদ মঈন শরিয়া আইন প্রয়োগের দায়িত্বপ্রাপ্ত রাষ্ট্রীয় ধর্মীয় বিভাগ কর্তৃক যে ব্যবহার পেয়েছে তাতে মালায়শীয় ব্লগাররা অসন্তোষ প্রকাশ করেছে। এই বহু ধর্মের দেশে শরিয়া আইন রাষ্ট্রীয় পর্য়ায়ে নয় কিছু প্রদেশের মধ্যে শুধুমাত্র মুসলিমদের উপর আরোপিত হয়।

সাংবাদিক নুরায়না এ সামাদ জানাচ্ছেন:

গত মঙ্গলবার সানওয়ে সিটিতে তার গানের পারফর্মেন্সের পর পেরাক ধর্মীয় বিভাগ (JAIP) এক অভিযানে যে কয়জন মুসলিমকে ধরে তাদের মধ্যে সেও (নুর ইদায়) ছিল। তাকে আলাদা করা হয় কারন যে হাতকাটা জামাটি সে পরে ছিল সেটিকে ওই অফিসাররা অশোভন মনে করেছিল।

নূর ইদায় এর ভাষ্য অনুযায়ী JAIP অফিসাররা তাকে শরীর প্রদর্শন এবং অনৈতিক কাজে উৎসাহ দেয়ার অভিযোগ আনেন। তারা তার পরিচয়পত্র ছুঁয়ে দেখেননি এই বলে যে ওটা অপরিস্কার এবং গায়িকা হিসাবে তাকে বিদ্রুপ করে। তারা তার শ্বাস পরীক্ষা করে দেখে যে সে মদ্যপান করেছে কিনা, যদিও পরিক্ষার ফলাফল না-সূচক হয়।

নুরায়না আরও বলেন :

যদি ধর্মীয় কর্তৃপক্ষ মানুষকে আটকে এভাবে অপদস্থ করতে থাকে, তাহলে মুসলিম-অমুসলিম সবাই ইসলাম ধর্ম এবং শরিয়া প্রয়োগকারীদের সম্পর্কে সহজেই খারাপ ধারনা করবে।

বর্তমানে ইন্দোনেশিয়ায় বসবাসকারী মালায়শিয় আনস্পান বলেন যে কর্তৃপক্ষের এ ধরনের ব্যবহারের জন্য কিছু মালায়শিয় দেশের বাইরে থাকতে পছন্দ করে

শাঙহাই স্টিফেন এ ব্যাপারে পেরাকের রাজপুত্রকে হস্তক্ষেপ করতে অনুরোধ করেছে । মালায়শীয়ায় রাজ পরিবাররা সাধারণত: আনুষ্ঠানিক ভূমিকা রাখলেও তাদের সবাই সম্মান করে।

আমি আন্তরিক আশা করি যে পেরাকের মাননীয় রাজা মুদা এবং মাননীয় রানী ডঃ নাজরিন শাহ তাড়াতাড়ি হস্তক্ষেপ করে এইসব স্ব-নির্ধারিত সাধুদের খেয়ালি রায় প্রদান বন্ধ করবেন। JAIP থামুন. . .এটা ২০০৭ , আর পূর্ণ শ্রদ্ধাপূর্বক, আমি ভুল বলে থাকলে আমাকে ঠিক করে দিন – এখনও কি ইসলামের অন্ধকার যুগ?

রকি ব্রিউ ব্লগের আহিরুদ্দিন আতান নৈতিক নিয়ন্ত্রনের দ্বৈত স্টান্ডার্ড সম্পর্কে লিখেছেন:

সিটি নূর ইদায় কি সত্যিই তার শরীর প্রদর্শন এবং অনৈতিক কাজে উৎসাহিত করেছে? আমি ওখানে ছিলাম না, যার জন্য আমি জানবো না। কিন্তু আমি এই বৈষম্যে ক্লান্ত । কিছু মুসলিম এই দেশে অন্য মুসলিমদের লজ্জা দিয়ে আনন্দ পায়, আর লক্ষ্য করে দেখবেন যে এটা হয়ে থাকে শুধুমাত্র নিচু বর্ণের মুসলিমদের সাথে। এরা কখনও যেমন মালায়শিয়ান এয়ারলাইনসের মুসলিম পরিচালকদেরদের প্লেনে মদ নেয়া আর খাওয়ার বিচারের জন্য শরিয়া আদালতে ডাকবে না, নাকি ডাকবে?

দেশিদেরেটা আহিরুদ্দিনের এই লেখার উপর একটা মন্তব্য করতে গিয়ে মালয়শিয়ানদের সাবধান করে দিয়েছেন ওই সব ধর্মীয় কর্তৃপক্ষের প্রশ্রয় না দেয়ার জন্যে যারা মানুষের জীবনে অন্যায় হস্তক্ষেপ করে ।

যদি সব ধর্ম, বর্ণ এবং গোত্রের মালায়শিয়রা সাবধান না হয় তাহলে এইসব স্ব-নির্বাচিত দলরা একদিন আমদের বাড়ীতে ঢুকে স্থানীয় কর্তৃপক্ষের নিয়ম কানুনের দোহাই দিয়ে সারা ঘর তল্লাশি চালাবে । মালাক্কা সিএম অনুমোদিত ম্যাট স্কোডেঙ দিয়ে শুরু করেছিল, পুত্র জায়াতে পিটি রিলিজিয়াস ডিপার্টমেন্ট এধরনের রেইড শুরু করেছিল, এবং এখন এই ক্ষুদ্র নেপোলিয়নরা একজন গায়িকাকে হেনস্তা করে দেখছে যে কম সুবিধাভোগীদের মালয়েশিয়ান প্রান্তিক সমাজকে নিপীড়ন করা যায় কিনা।

এখানে ম্যাট স্কোডেঙ হলো ধর্মীয় দপ্তর কর্তৃক নিয়োগর্কৃত গোপন গোয়েন্দা বাহিনী যারা অপরাধীদের খবর দেয়।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .