বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

জি এইট সামিট: পৃথিবী এখনো কি ভাল হতে পেরেছে?

জি এইট (+৫) দেশগুলি গতসপ্তাহে (জুন ৮, ২০০৭) হাইলিগেনডাম, জার্মানীতে মিলিত হয়েছিল। পৃথিবীর ধনী দেশগুলো আবহাওয়া পরিবর্তন এবং আফ্রিকার দারিদ্রতার ব্যাপারে তারা একমত হয়েছেন তবে তা বিশ্ব পুজিবাদের বিপক্ষে যারা তাদের হয়ত সন্তুষ্ট করতে পারেনি।

গ্লোবাল ভয়েসেস গত সপ্তাহে ভারত, রাশিয়া এবং আফ্রিকা থেকে এসম্পর্কে মতামতগুলো তুলে ধরেছে। পেরু এবং জাপানের মত দৃরের দেশ থেকেও লোক এসে এই সম্মেলনের বিপক্ষে আন্দোলন করেছে। জার্মানীর জুয়েলস ইন দা জান্গল জি এইট সামিট সংক্রান্ত কিছু শ্রেষ্ঠ আর্টিকেল ও ব্লগপোস্ট সংগ্রহ করেছেন এবং বলছেন:

যদিও আমি অন্য অনেকের মত এই সামিটের আলোচনার ফলাফল নিয়ে নিরাশাবাদী র্নই কিন্তু একই সময় এও ভাবতে হয় যে এই জি এইট সামিট কি বর্তমান পরিস্থিতিতে প্রাসঙিক? তারা কি কখনও বিশ্বের সমস্যাগুলো সমাধান করতে পেরেছিল?

এটি একটি সার্কাস হয়ে গেছে যেখানে রাজনীতিবিদরা এবং রৌদ্রের নীচে বিভিন্ন গ্রুপ তাদের ক্রোধ এবং আস্ফালন দেখায় এমন সব বিষয় নিয়ে যার সাথে সামিটের এজেন্ডার কোন সম্পর্ক নেই। তাই বলতেই হয় কেন?

ফ্রান্সিসকো জেরিন্দা ৯জন সাংবাদিক দ্বারা লিখিত চমৎকার আফ্রিকাভক্স২০০৭ ব্লগে ধনাত্মকভাবে বলছেন:

জার্মানীতে গত চারদিন গ্লোবালাইজেশনের বিপক্ষে প্রতিবাদ খুব জোড়ালো হয়েছে। রাস্তাগুলো প্রায় সবসময়ই বন্ধ ছিল এবং পুলিশ আমাদের অন্য পথে সরিয়ে দিয়েছে।

কিন্তু আমার জন্য এই অস্বস্তিকর জ্বালাতনের গুরুত্ব রয়েছে, এই প্রতিবাদ আমার কাছে অর্থবহ। আমি দুবছর আগে দেখেছি, গ্লেনেগেলস সামিটে সিভিল সোসাইটির চাপের মুখে পরে আমার দেশ মোজাম্বিকের ঋন মুক্তি ঘটেছিল।

প্যাট্রিশিয়া দানিয়েলস ওপেন ডেমোক্রাসির ওপেনসামিটব্লগে জি এইট সামিট এবং অলটারনেটিভ সামিট সম্পর্কে নারী অধিকার পরিপ্রক্ষিতে রিপোর্ট করেছেন। তিনি পাঠকদের বলেছেন জি এইট সামিট ঘোষনা না পড়তে। তার মতে ওগুলো কিছু ভদ্র বাক্য যা জি এইট দেশগুলোকে কিছুই পালনে অঙীকারবদ্ধ করে না।

যেমনটি ভাবা হয়েছিল, লক্ষ লক্ষ ইউটিউব এর দর্শক বেশী আগ্রহী ছিলেন জানতে যে ফ্রান্সের নতুন প্রেসিডেন্ট নিকোলাস সারকোজী তার জি এইট প্রেস কন্ফারেন্সে মাতাল অবস্থায় ছিলেন কিনা।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .